Bangladesh Pratidin

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ জানুয়ারি, ২০১৭

প্রকাশ : ১৮ জুন, ২০১৬ ১১:৫৭
আপডেট : ১৮ জুন, ২০১৬ ১২:১৪
বিরল রক্তদান! বাংলাদেশির প্রাণ বাঁচালেন চার ভারতীয়
অনলাইন ডেস্ক
বিরল রক্তদান! বাংলাদেশির প্রাণ বাঁচালেন চার ভারতীয়

ভারতের মুম্বাইয়ের চার বাসিন্দা নিজেদের রক্ত দিয়ে এক বাংলাদেশি যুবকের প্রাণ বাঁচালেন। এরা হলেন স্বপ্না সবন্ত, কৃষ্ণনন্দ কোরি, মেহুল ভেলেকর এবং প্রবীণ শিন্ডে।

মোহাম্মদ কামারুজ্জামানের বয়স পঁচিশ। পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি। বাড়িতে রয়েছেন অসুস্থ মা। গত ২১ মে ঢাকায় একটি দুর্ঘটনায় মারাত্মকভাবে জখম হন কামারুজ্জামান। ঢাকারই একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাঁকে। অস্ত্রোপচার করতে গিয়ে চিকিৎসকরা দেখেন কামারুজ্জামানের রক্তের গ্রুপ একেবারে বিরল। দেশের কোনও ব্লাড ব্যাংকেই খোঁজ মেলেনি ওই গ্রুপের রক্তের।

চিকিৎসকরা জানান, এই বিরল ব্লাড গ্রুপের নাম ‘বম্বে’। অনলাইনের মাধ্যমে এ ধরনের ব্লাড গ্রুপের খোঁজ শুরু করেন কামারুজ্জামানের পরিজনেরা। খোঁজ নিয়ে দেখা যায় ভারতে চারশোরও কম মানুষ আছেন যাদের এই ব্লাড গ্রুপ রয়েছে। তাদের মধ্যে কয়েক জনকে চিহ্নিত করা হয়। ২৫ বছরের তরতাজা কামারুজ্জামানকে রক্ত দিয়ে পরিবারের মুখে হাসি ফোটাতে এগিয়ে আসেন ওই চার মুম্বাইবাসী।

খবর পেয়েই কামারুজ্জামানের এক সহকর্মী শেখ তুহিনুর আলম মুম্বাই উড়ে আসেন রক্ত সংগ্রহ করতে। বিশেষ ধরনের প্লাস্টিক প্যাকেটে আইজেলের মাধ্যমে সেই রক্ত শনিবার পৌঁছে দেওয়া হবে বাংলাদেশে। সংবাদমাধ্যমকে আলম জানান, কামারুজ্জামানের বাঁচার আশাই ছেড়ে দিয়েছিলেন তারা। তার বাম পায়ের হাড়, বাম হাত পুরোপুরি ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে গেছে। পেলভিস ভেঙে গেছে। দেশের বিভিন্ন ব্লাড ব্যাংকে তন্ন তন্ন করে খুঁজেও ওই বিরল ব্লাড গ্রুপ মেলেনি। পরিবারের সকলের রক্ত পরীক্ষা করেও সুরাহা হয়নি। যদিও তার বোনের রক্তের সঙ্গে সেই গ্রুপের মিল পাওয়া যায়, কিন্তু তিনি রক্ত দেওয়ার মতো অবস্থায় ছিলেন না। আলম বলেন, “এই বিরল গ্রুপের রক্ত দান করে শুধু একজনেরই নয়, গোটা পরিবারের প্রাণ বাঁচাল ভারত। ”

সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা


বিডি-প্রতিদিন/ ১৮ জুন, ২০১৬/ আফরোজ

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow