Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১০:৫৮
সিরিয়া সঙ্কট
মার্কিন হামলাতেই বিপন্ন শান্তিচুক্তি, ক্ষুব্ধ রাশিয়া
অনলাইন ডেস্ক
মার্কিন হামলাতেই বিপন্ন শান্তিচুক্তি, ক্ষুব্ধ রাশিয়া
ভ্লাদিমির পুতিন। ছবি: ইন্টারনেট

সিরিয়ার যুদ্ধবিরতির জন্য দায়ী করা হলো আমেরিকাকে। শনিবার দেইর আল জৌর শহরে মার্কিন বিমান হামলায় অন্তত ৬২ জন সিরীয় সেনার মৃত্যু হয়। এরপরই রাশিয়া আশঙ্কা প্রকাশ করে জানিয়েছে আমেরিকার বাড়াবাড়ির প্রশ্নেই মূলত সিরিয়ার যুদ্ধবিরতি। যদিও বিষয়টিকে ‘অনিচ্ছাকৃত’ বলে দুঃখপ্রকাশ করেছে আমেরিকা কিন্তু তাতেও বরফ গলছে না। বরং সিরিয়ার পরিস্থিতি নিয়ে জাতিসংঘকে আরও একবার জরুরি বৈঠকে বসার আবেদন জানিয়েছে রাশিয়া। আর এবারও সেটা ওয়াশিংটনকে পাশে বসিয়েই।

গত সপ্তাহে এই দুই দেশের মধ্যস্থতাতেই যুদ্ধবিরতির পক্ষে সায় দেয় সিরিয়া। কথা ছিল, ইসলামিক স্টেট এবং আল-নুসরা জঙ্গিদের দমনে একটি যৌথ কেন্দ্র প্রতিষ্ঠা করবে ওয়াশিংটন ও মস্কো। সিরিয়ার সরকার-বিরোধী গোষ্ঠীদের নির্দিষ্ট কয়েকটি ঘাঁটিতে সামরিক অভিযান বন্ধেও সম্মত হয়েছিল দুই দেশ। গত সোমবার থেকে যুদ্ধবিরতি কার্যকর হওয়ার পর তাই সিরিয়ায় ব্যাপক রাজনৈতিক পরিবর্তনের আশা করছিলেন আন্তর্জাতিক কূটনৈতিক মহলের একটা বড় অংশ। কিন্তু সপ্তাহ-শেষের এই মার্কিন হামলা আর তা নিয়ে রাশিয়ার আঙুল তোলা— জটিলতা আরও বাড়িয়ে দিল যুদ্ধবিধ্বস্ত সিরিয়ায়।

রাশিয়ার অভিযোগ, গত দু’দিনে সিরিয়ার সরকার-বিরোধী গোষ্ঠী ৫০টিরও বেশি হামলা চালিয়েছে। আর তা কোনও ভাবেই নিয়ন্ত্রণ করতে পারছে না মার্কিন সেনাবাহিনী। ওয়াশিংটন অবশ্য এই অভিযোগ মানতে নারাজ। বরং তাদের দাবি, জঙ্গিদের ঘাঁটি ভেবেই কাল রাতে সিরিয়ার পূর্বাঞ্চলে দেইর আল জৌর শহরে হামলা চালিয়েছিল মার্কিন বোমারু বাহিনী। সেখানে যে সিরীয় বাহিনীও মোতায়েন রয়েছে, তা নাকি তাদের কোনও ভাবেই জানা ছিল না।

মার্কিন সেনার সেই ‘ভুল ভাঙে’ রাশিয়ার কর্মকর্তাদের থেকে পাওয়া খবরে। আর তার পরেই হামলা বন্ধ করা হয় বলে আজ দাবি করেছে ওয়াশিংটন। একই সঙ্গে সিরিয়ার বেশির ভাগ অঞ্চলেই যুদ্ধবিরতি কার্যকর রয়েছে বলে জানিয়েছে মার্কিন সেনা।

মস্কো তবু জাতিসংঘেরর সঙ্গে বৈঠক চাইছেই। রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, সিরীয় যোদ্ধাদের উপর মার্কিন বিমান হামলায় শান্তিচুক্তি বিঘ্নিত হওয়ার পাশাপাশি আইএস-ও বাড়তি শক্তি পাবে।


সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা।


বিডি-প্রতিদিন/ ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬/ আফরোজ

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow