ঢাকা, শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮

আজকের পত্রিকা

'ধর্ম যার যার, কিন্তু দেশটা সবার'
ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি:

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. হারুন উর রশিদ আসকারী বলেছেন, ‘ধর্ম যার যার কিন্তু দেশটা সবার। আমাদের সকলকে এই মানসিকতা লালন করতে হবে। হিন্দু, মুসলিম, বৌদ্ধ, খ্রীষ্টান নির্বিশেষে সকল ধর্মাবলম্বীদের সমষ্টিগত প্রয়াসের ফসল ছিল বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা। তারই পরিপ্রেক্ষিতে ১৯৭২ সালের পবিত্র সংবিধানে আমাদের রাষ্ট্রের অন্যতম প্রধান মূলনীতি হিসেবে এসেছে ধর্মনিরপেক্ষতা।

রবিবার দুপুর দেড়টার দিকে বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান মিলনায়তনে সরস্বতী পূজা উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, সকল ধর্মের মূল সার মানবতাবাদ। কল্যাণ এবং ইহলৌকিক ও পারলৌকিক মুক্তির জন্য ধর্ম মানুষকে পথ দেখায়। বিশ্বের সকল ধর্মের মানুষ মানবতাবাদকে সামনে রেখে ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের সাথে নিজ নিজ ধর্ম পালন করলে পারস্পরিক সৌহার্দ্য-সম্প্রীতি বৃদ্ধি পাবে।

বিপ্লব আইচ ও অনন্যা দত্তের যৌথ সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন হিসাববিজ্ঞান ও তথ্য পদ্ধতি বিভাগের অধ্যাপক ড. অরবিন্দু সাহা। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপ উপাচার্য অধ্যাপক ড. শাহিনুর রহমান, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. সেলিম তোহা, শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. সমিতির সভাপতি ড. মাহবুবুর রহমান এবং সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন।

বিশেষ অতিথি অধ্যাপক ড. শাহিনুর রহমান বলেন, গ্রন্থগত শিক্ষার সঙ্গে নৈতিকতা, মানবিক মূল্যবোধ এবং ভ্রাতৃত্বের শিক্ষার সমন্বয় ঘটিয়ে বিভাজন ভুলে সকল ধর্মের মানুষকে এক হয়ে কাজ করে যেতে হবে। আর শিক্ষার আলো যেন আমাদের প্রতিটি ঘরে জ্বলে উঠে স্বরস্বতী পূজার মাধ্যমে সেটা প্রত্যাশা করি।

অনুষ্ঠানে ধর্মালোচনা করেন যশোরের রামসরাস্থ স্মৃতিতীর্থ মন্দিরের অধ্যক্ষ ড. মুক্তিদায়ী নিতাই দাস ব্রহ্মচারী। এর আগে সরস্বতী পূজা উপলক্ষে ক্যাম্পাসে একটি র‌্যালি বের হয়।

বিডি প্রতিদিন/৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৭/ সালাহ উদ্দীন


এই পাতার আরো খবর