ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর, ২০১৮

আজকের পত্রিকা

সামাজিক সমস্যায় ক্ষত বিক্ষত পাহাড়তলী
ফারুক তাহের, চট্টগ্রাম

চট্টগ্রাম নগরের নান্দনিক ও অভিজাতদের এলাকা হিসেবে পরিচিত ১৩ নম্বর পাহাড়তলী ওয়ার্ড। পাহাড়-প্রকৃতির অনবদ্য মেলবন্ধনে গড়ে ওঠা এই ওয়ার্ডের আবাসিক এলাকা। পাহাড়ের খাঁজে খাঁজে ওই এলাকায় গড়ে উঠেছে বিলাসবহুল ভবন, ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান, বহুজাতিক কোম্পানির কার্যালয়। ভারতীয় সহকারী হাইকমিশনারের কার্যালয় ও বাসস্থান এখানে। পরিচ্ছন্ন রাস্তাঘাট এবং উন্নত যাতায়াত ব্যবস্থার কারণে ধনাঢ্যরা এই এলাকাটিতে বেশি বসবাস করেন। তবে এখানে নাগরিক সমস্যা তুলনামূলক কম হলেও সামাজিক সমস্যা তীব্র বলে অভিযোগ এলাকাসীর। এখানে গড়ে উঠেছে বেশ কয়েকটি অবৈধ বার ও ‘মুজেরাখানা’। যেখানে প্রতি রাতে মদ-জুয়া ও অসামাজিক কাজের আসর বসে। যাদের সঙ্গে স্থানীয় প্রশাসনের ভাগবাটোয়ারার মতো অবৈধ সম্পর্ক রয়েছে বলেও এলাকাবাসীর অভিযোগ।

এ ছাড়া অবাঙালি বিহারিদের বড় একটি অংশের বসবাস পাহাড়তলী ওয়ার্ডে। পানির সংকট ও স্যানিটেশন সমস্যার পাশাপাশি কিছু কিছু আবাসিক এলাকার বাইলেন এখনো কাঁচা রয়ে গেছে। এ ওয়ার্ডে জনসংখ্যা প্রায় আড়াই লাখ। নগরের টাইগারপাস, আমবাগান, মাস্টার লেইন, জালালাবাদ, দক্ষিণ খুলশী, পশ্চিম খুলশী, ওয়ালেস কলোনি, সেগুনবাগান, ঝাউতল, টিপিপি কলোনি, সরদারপাড়া ও পাহাড়িকা আবাসিক এলাকা নিয়ে ওয়ার্ডটির অবস্থান। সরেজমিন জানা গেছে, এলাকাটির প্রধান সমস্যা হলো মাদক ব্যবসা।



এই পাতার আরো খবর