ঢাকা, রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮

আজকের পত্রিকা

সেবা প্রদানের নামে চাঁদাবাজি
রুহুল আমিন রাসেল

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন-ডিএসসিসি’র ১৬ নম্বর ওয়ার্ড এলাকার প্রতিটি ফ্ল্যাট থেকে সেবা প্রদানের নামে ২০০ টাকা করে আদায় করছে স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও যুবলীগ নিয়ন্ত্রিত ‘হাতিরপুল-ভূতের গলি সমাজ কল্যাণ পরিষদ’। যার উপদেষ্টা কাউন্সিলর হোসেন হায়দার নিজেই। বাসাবাড়ি থেকে বর্জ্য সংগ্রহ, নিরাপত্তাকর্মী, মাদকমুক্ত সমাজ, যানজট নিরসন, সড়ক সংস্কার, বখাটেদের উৎপাত বন্ধসহ নানা পদক্ষেপের নামে এই টাকা তোলা হয়। এই এলাকার ফুটপাতে চাঁদাবাজি আছে বলে অভিযোগ রয়েছে। ভ্যান গাড়িতে তরকারি বিক্রেতা থেকে শুরু করে সব প্রকার ব্যবসা-প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে ২০ টাকা থেকে শুরু করে হাজার টাকা চাঁদা আদায়ে বেপরোয়া ক্ষমতাসীন দলের নেতা হিসেবে পরিচিতরা। স্থানীয় বাসিন্দারা পরিচয় গোপন রাখার শর্তে  বলেন, ধানমন্ডি স্কুলের ছোট ছোট শিক্ষার্থী থেকে শুরু করে আশপাশের এলাকায় রমরমা মাদক বাণিজ্যের পুরোটাই নিয়ন্ত্রণ করে মামুন ও পলাশ নামের দুই মাদকসম্রাট। এরা এলাকায় গাঁজা, ফেনসিডিল, ইয়াবা বা বাবা নামের মাদক সরবরাহ করেন অনেকটা পুলিশের সামনেই। পুলিশের এই রহস্যজনক নীরবতায় স্থানীয় বাসিন্দারা প্রতিবাদ করার সাহস পায় না। হাতিরপুল-ভূতের গলি ও আশ-পাশ এলাকায় গোপনে মাদক বিক্রি হয় বলে স্বীকার করলেন ওয়ার্ড কাউন্সিলর হোসেন হায়দার। সেবা প্রদানের নামে প্রতি ফ্ল্যাট থেকে ২০০ টাকা করে আদায় প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ১০০ টাকা করে নেওয়া হচ্ছে। এটা অতিরিক্ত সেবা প্রদানের জন্যে নেওয়া হয়। তবে এলাকায় কোনো চাঁদাবাজি নেই। 



এই পাতার আরো খবর