ঢাকা, বুধবার, ২১ নভেম্বর, ২০১৮

আজকের পত্রিকা

শিক্ষকের কিল-ঘুষিতে ছাত্র হাসপাতালে
লালমনিরহাট প্রতিনিধি

লালমনিরহাটে শিক্ষকের কিল-ঘুষি ও লাথিতে আহত হয়েছে কামরুল হাসান (১৩) নামে পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্র। গুরুতর অবস্থায় তাকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সদর উপজেলার রমাকান্ত সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গতকাল ক্লাস চলাকালে এ ঘটনা ঘটে। অভিযুক্ত শিক্ষকের নাম আব্দুল আউয়াল। আহত কামরুল পঞ্চগ্রাম ইউনিয়নের রমাকান্ত এলাকার দমসেরের ছেলে। স্কুল সূত্রে জানা যায়, প্রথম বেঞ্চে বসা নিয়ে ওই বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্র কামরুল হাসান ও রাকিবের মধ্যে ঝগড়া হয়। ঘটনাটি রাকিব তার বাবা বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আব্দুল আউয়ালকে জানালে তিনি ক্লাসে এসে কিছু না শুনেই কামরুলকে এলোপাতাড়ি কিল-ঘুষি মারতে থাকেন। কামরুল লুটিয়ে মাটিতে পড়লে আউয়াল জুতা দিয়ে শরীরের বিভিন্ন অংশে লাথি মারেন। একপর্যায়ে মুখ দিয়ে ফেনা বের হতে থাকলে শিক্ষক অবস্থা বেগতিক দেখে সটকে পড়েন। পরে অন্য শিক্ষকরা কামরুলকে লালমনিরহাট হাসপাতালে নিয়ে যান। দায়িত্বরত চিকিৎসক শামীমা নাজনীন জানান, ছেলেটি মাথায় প্রচণ্ড আঘাত পাওয়ায় মুখ দিয়ে ফেনা বের হয়। তবে বর্তমানে সে সঙ্কামুক্ত। এ ব্যাপারে অভিযুক্ত শিক্ষক মুঠোফোনে জানান, রাগের মাথায় ওই ছাত্রকে দু-চারটি চর থাপ্পড় মেরেছি। প্রধান শিক্ষক আফসার আলী বলেন, ‘একজন শিক্ষক কিভাবে ছাত্রকে এভাবে আঘাত করতে পারে আমার জানা নেই। তদন্ত করে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’



এই পাতার আরো খবর