ঢাকা, শনিবার, ১৭ নভেম্বর, ২০১৮

আজকের পত্রিকা

বিএনপির ১০ নেতা-কর্মীর বাড়িতে হামলা ভাঙচুর
ভোলা প্রতিনিধি

ভোলার লালমোহন উপজেলা বিএনপির সভাপতিসহ ছাত্রদল, যুবদল ও স্বেচ্ছাসেবক দলের ১০ নেতা-কর্মীর বাড়িতে হামলা ও ভাঙচুর করেছে ছাত্রলীগ-যুবলীগ। এ সময় বিএনপির ১২ নেতা-কমীকে মারধর করা হয়। বুধবার বিকাল থেকে রাত পর্যন্ত লালমোহন শহরে এ তাণ্ডব চলে। ওই সময় পুলিশের ভূমিকার সমালোচনা করে লালমোহন থানার ওসির অপসারণ দাবি করেছেন বিএনপি নেতারা। গতকাল ভোলা জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হারুন অর রশিদ ট্রুম্যান ও লালমোহন পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জহিরুল ইসলাম সুমন সাংবাদিক সম্মেলনে এ দাবি জানান। লিখিত বক্তব্যে হারুন অর রশিদ বলেন, ছাত্রলীগ-যুবলীগের মাছুম, খোকন ও  জুবায়েরের নেতৃত্বে ৩০-৪০ জন লালমোহন বিএনপির সভাপতি কবির পাটোয়ারী, ছাত্রদল আহ্বায়ক জসিম, যুগ্ম আহ্বায়ক রাসেল, হান্নান, যুবদলের যুগ্ম আহ্বায়ক রফিক, শ্রমিক দলের মোর্শেদ, স্বেচ্ছাসেবক দলের রিপন, বিল্লাল, নোমান, শহীদদের বাড়িতে হামলা লুটপাট করে। বিএনপির পক্ষ থেকে পুলিশের কাছে বার বার অভিযোগ করেও সাড়া মেলেনি। স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা শফিকুল ইসলাম বাদল বলেন, নিজেদের মধ্যে প্রভাব বিস্তার নিয়ে বিএনপির নেতা-কর্মীরাই এ হামলার ঘটনা ঘটিয়েছে। আওয়ামী লীগের কেউ এ ঘটনায় জড়িত না। লালমোহন থানার ওসি হুমায়ুন কবির বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে কোনো ভাঙচুরের আলামত পায়নি।



এই পাতার আরো খবর