ঢাকা, বুধবার, ২১ নভেম্বর, ২০১৮

আজকের পত্রিকা

দানে আত্মীয়দের অগ্রাধিকার দিন
মুফতি মাও. মো. ইব্রাহীম শরীফ

মহান আল্লাহ নিজ অনুগ্রহে মানুষকে সম্পদ দিয়েছেন। আর সেই সম্পদ থেকে আল্লাহর রাস্তায় ব্যয় করার নির্দেশ দিয়েছেন। এ সম্পদ ব্যয়ের মাধ্যমে আমরা আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জন করতে পারব। সম্পদ ব্যয় করার সবচেয়ে বেশি হকদার নিকটাত্মীয়। হাদিসে রসুল এবং সাহাবিদের জীবন থেকে আমরা এর অনেক দৃষ্টান্ত পাই। হজরত আবু তালহা (রা.) এর অনেক খেজুর বাগান ছিল। যখন নাজিল হলো, ‘তোমরা কখনই কল্যাণ লাভ করতে পারবে না, যতক্ষণ না তোমরা তোমাদের প্রিয় বস্তু থেকে দান করবে।’ (সূরা আলে ইমরান : ৯২)। তখন আবু তালহা (রা.) রসুল (সা.)-এর কাছে এসে বলেন, হুজুর! মদিনায় আমার অনেক খেজুর বাগান আছে। তার মধ্যে ‘বায়রুহা’ নামক খেজুর বাগানটি আমার খুব প্রিয়। আমি এটি আল্লাহর রাস্তায় দান করলাম। আপনার যাকে ইচ্ছা তাকে এটি দিয়ে দিন। এ কথা শুনে রসুল (সা.) বললেন, তোমাকে ধন্যবাদ, এ হচ্ছে লাভজনক সম্পদ। তুমি যা বলেছ তা শুনলাম। আমি মনে করি, তোমার আপনজনদের মধ্যে তা বণ্টন করে দাও। আবু তালহা (রা.) বললেন, হে রসুল! আমি তাই করব। অতঃপর তিনি তাঁর আত্মীয়স্বজন, আপন চাচার বংশধরের মধ্যে তা বণ্টন করে দিলেন’ (বুখারি : ১৪৬১, মুসলিম : ৯৯৮)।

কোনো এক ঈদের নামাজ শেষে রসুল (সা.) ঈদগাহে গেলেন এবং নামাজ ও খুতবা শেষে মহিলাদের কাছে এলেন। তিনি মহিলাদের উদ্দেশে বললেন, ‘হে নারী সম্প্রদায়! তোমরা বেশি করে সাদকা কর। আমাকে জাহান্নামে তোমাদের অধিক সংখ্যক দেখানো হয়েছে। তারা বললেন, হে আল্লাহর রসুল (সা.)! এর কারণ কী? তিনি বললেন, তোমরা বেশি অভিশাপ দিয়ে থাক এবং স্বামীর অকৃতজ্ঞ হয়ে থাক। হে মহিলারা! জ্ঞান ও দ্বীনে অপরিপূর্ণ হওয়া সত্ত্বেও দৃঢ়চেতা পুরুষের বুদ্ধি হরণকারিণী তোমাদের মতো কাউকে আমি দেখিনি। যখন তিনি ফিরে এসে ঘরে পৌঁছলেন, তখন ইবনে মাসউদ (রা.)-এর স্ত্রী যায়নাব (রা.) তাঁর কাছে প্রবেশের অনুমতি চাইলেন। তাকে অনুমতি দেওয়া হলো। তিনি বললেন, হে নবী! আজ আপনি সাদকাহ করার নির্দেশ দিয়েছেন। আমার অলংকার আছে। আমি তা সাদকাহ করার ইচ্ছা করেছি। আমার স্বামী ইবনে মাসউদ মনে করেন, আমার এ সাদকায় তার ও তার সন্তানদেরই হক বেশি। এ কথা শুনে রসুল (সা.) বললেন, যায়নাব! তোমার স্বামী ইবনে মাসউদ ঠিক বলেছে। তোমার স্বামী ও সন্তানরাই তোমার এ সাদকার অধিক হকদার।’ (বুখারি : ১৪৬২, মুসলিম : ৯৮২)। সুতরাং দানের ক্ষেত্রে আমাদের নিকটাত্মীয়দের অগ্রাধিকার দিতে হবে।  এতে দানের সওয়াবও পাওয়া যাবে আবার আত্মীয়ের হকও আদায় করা হবে।

লেখক : খতিব, দারুস সালাম আছিয়া জামে মসজিদ, নারিন্দা, ঢাকা।



এই পাতার আরো খবর