ঢাকা, বুধবার, ১৪ নভেম্বর, ২০১৮

আজকের পত্রিকা

হোয়াইট হাউসে সাংবাদিক প্রবেশে বাধা
প্রতিদিন ডেস্ক

হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি সন স্পাইসারের দফতরে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছিল। এদিন আধুনিক আমেরিকার ইতিহাসে এক অভূতপূর্ব ঘটনা ঘটেছে। সিএনএন, বিবিসি, গার্ডিয়ান, নিউইয়র্ক টাইমস, লস অ্যাঞ্জেলেস টাইমস, পলিটিকোসহ বেশ কয়েকটি সংবাদ প্রতিষ্ঠানের সাংবাদিকদের এ সংবাদ সম্মেলনে অংশ নিতে দেওয়া হয়নি। সংবাদ সম্মেলন কাভার করার জন্য বেছে বেছে কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের সংবাদকর্মীদের ডাকা হয়েছিল। উল্লিখিত প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রতিনিধিরা স্পাইসারের দফতরে ঢুকতে গেলে তাদের জানানো হয় যে, সংবাদ সম্মেলন কাভার করার জন্য তৈরি সাংবাদিকদের তালিকায় তাদের নাম নেই। হোয়াইট হাউসের এমন সিদ্ধান্তে ট্রাম্প প্রশাসন ও গণমাধ্যমের মধ্যকার বিরাজমান খারাপ সম্পর্ক আরও খারাপ হবে বলে বিশ্লেষকদের মত। কয়েকটি সংবাদমাধ্যমকে শুক্রবারের সংবাদ সম্মেলনে অংশ নেওয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞাসংক্রান্ত হোয়াইট হাউসের সিদ্ধান্তের প্রতি সমর্থন দিয়েছে ট্রাম্প প্রশাসন। প্রশাসনের মুখপাত্র সারা স্যান্ডার্স এক সংক্ষিপ্ত বিবৃতিতে বলেন, ‘হোয়াইট হাউসের সাংবাদিক গোষ্ঠী (প্রেস পুল) রয়েছে যেখানে প্রতিটি সংবাদমাধ্যমকে প্রতিনিধিত্ব করা হয় এবং সংবাদ সম্মেলনের ব্যাপারে আমাদের কাছ থেকে আপডেট জানানো হয়। হোয়াইট হাউসের প্রেস পুলে সাধারণত একটি টিভি চ্যানেল, একটি রেডিও স্টেশন, একটি পত্রিকা এবং আরও কয়েকটি সংবাদমাধ্যমের প্রতিনিধি থাকে। সে হিসেবে সন স্পাইসারের সংবাদ সম্মেলনে স্থানীয় পাঁচটি বড় টিভি নেটওয়ার্কের মধ্যে সিএনএন ছাড়া এনবিসি, এবিসি, সিবিএস ও ফক্স নিউজের প্রতিনিধিদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। এ ছাড়া রক্ষণশীল ধারার সংবাদ প্রতিষ্ঠান ব্রেইতবার্ত নিউজ, দ্য ওয়াশিংটন টাইমস এবং ওয়ান আমেরিকা নিউজ নেটওয়ার্কের প্রতিনিধিদের এতে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। এদিকে সিএনএন, ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল, এপিসহ বেশ কয়েকটি সংবাদমাধ্যম হোয়াইট হাউসের এমন সিদ্ধান্তের কড়া সমালোচনা ও নিন্দা জানিয়েছে। কেউ কেউ এ ঘটনাকে ট্রাম্প প্রশাসন অগণতান্ত্রিক পথে রয়েছে বলে বর্ণনা করেছে। সিএনএন এক বিবৃতিতে জানায়, হোয়াইট হাউসের এটা হচ্ছে অগ্রহণযোগ্য পদক্ষেপ। তাদের অপছন্দনীয় কোনো সত্য যখন আপনি তুলে ধরবেন তখন ঠিক এভাবেই তারা জবাব দেবে। তা সত্ত্বেও আমরা সত্য তুলে ধরা অব্যাহত রাখব।’



এই পাতার আরো খবর