ঢাকা, বুধবার, ২১ নভেম্বর, ২০১৮

আজকের পত্রিকা

দাঁত ও মুখের কারণেও মাথাব্যথা
অধ্যাপক ডা. অরূপরতন চৌধুরী

কথায় বলে যার মাথা আছে তার ব্যথাও আছে। অর্থাৎ মাথা থাকলে ব্যথাও থাকবে। বিজ্ঞানীদের মতে মাথাব্যথা অন্যান্য কারণে হতে পারে।  তবে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে বেশিরভাগ মাথা ব্যথার কারণ শুধু মাথার অসুস্থতার কারণেই হয় তা সঠিক নয়। শরীরের অন্যান্য অঙ্গ-প্রতঙ্গের অসুস্থতার কারণেও মাথাব্যথা হতে পারে। উদাহরণস্বরূপ নাক, কান, গলা অথবা মুখের ভিতরের বিশেষ কোনো রোগের কারণে মাথাব্যথা হতে পারে। মুখের ভিতরের যে সব কারণে মাথাব্যথা হতে পারে সেগুলো হলো— মাড়ির প্রদাহ বা পেরিওডেন্টাল ডিজিজও দন্তক্ষয় বা ডেন্টাল ক্যারিজের প্রদাহজনিত রোগ পালপাইটিস, আক্কেল দাঁত বা উইজডম দাঁতের অসমান অবস্থানের কারণে জটিলতা, মুখের ভিতরের বিভিন্ন ধরনের ক্ষত বা ঘা, আঘাতজনিত কারণে চোয়ালের বা দাঁতের ফ্রেকচার বিভিন্ন ধরনের মিছ এবং টিউমার। দাঁতের ও মুখের এ ধরনের রোগ বা অসুস্থতা অনেক সময় কানে বা গলার ব্যথার কারণ হতে পারে। তবে বিশেষ যে একটি রোগের কারণে মাথাব্যথা বেশি হয় সেটি হলো উইজডম দাঁত বা আক্কেল দাঁতের বেয়াক্কেল অবস্থানের কারণে। অর্থাৎ আক্কেল দাঁত তার সঠিক অবস্থানে না থেকে বাঁকা হয়ে কখনো পাশের দাঁতের ওপর চাপ সৃষ্টি করে কখনোবা বাঁকা অবস্থানের কারণে উপরের দিকে বেরিয়ে আসতে না পেরে স্থায়ীভাবে প্রদাহ সৃষ্টি করে। আরও একটি বিশেষ কারণে মাথাব্যথা হতে পারে। সেটা হলো ট্রাইজিমিনাল নিউরেলজিয়া। যা স্নায়ুরোগ হিসেবেই চিহ্নিত, কিন্তু এক্ষেত্রেও প্রচণ্ড মাথাব্যথা হতে পারে যদিও তা কয়েক সেকেন্ডের জন্য। তা ছাড়াও মাথাব্যথার আরও কিছু কারণ আছে যা অন্যান্য বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা ব্যবস্থা দিয়ে থাকেন। এ প্রসঙ্গে একজন রোগীর কথা বলা প্রয়োজন। তার দীর্ঘদিন যাবৎ মাথাব্যথা নিয়ে বিখ্যাত বিশেষজ্ঞ সব ডাক্তারের ফাঁদে পরামর্শ নিয়েই চলছেন কিন্তু মাথাব্যথা কমার কোনো লক্ষণ দেখা যায় না। এমনকি এমআরআই এবং সিটিস্ক্যানও করা হয়েছে, কিছুতেই কমছে না। ব্যথার ওষুধ খেয়েও তিনি ইতোমধ্যে দেহের অনেক ক্ষতি করেছেন বিশেষত লিভারের সমস্যাও দেখা দিয়েছে। কোনোভাবেই যখন তার মাথাব্যথা কমছে না তখন প্রতিবেশী একজনের পরামর্শে দাঁতের ডাক্তারের কাছে আসেন, কারণ সেই প্রতিবেশী ভদ্রলোক একই কারণে একজন ভুক্তভোগী। পরবর্তীতে তার দাঁতের ডাক্তার ঙচ েএক্স-রের মাধ্যমে শনাক্ত করেন একটি আক্কেল দাঁতের অসমান অবস্থানকে। আক্কেল দাঁতের এই বাঁকা অবস্থানের কারণে পার্শ্ববর্তী দাঁতের উপর ক্রমাগত একটি চাপ সৃষ্টি, সেইসঙ্গে ওই স্থানে দীর্ঘদিনের ডেন্টাল ফ্লক জমা থাকার কারণে সৃষ্ট ডেন্টাল ক্যারিজজনিত পালপাইটিসই ছিল তার দীর্ঘদিনের মাথাব্যথার মূল কারণ। পরবর্তীতে তার সেই আক্কেল দাঁতের উৎপাটন ও ডেন্টাল ক্যারিজ আক্রান্ত দাঁতের রুট ক্যানেল চিকিৎসাই তাকে মাথাব্যথা থেকে মুক্ত করে । এমন অনেক ঘটনাই মানুষকে মাথাব্যথা  থেকে রেহাই দিতে পেরেছে। তাই মাথাব্যথার কারণ বের করতে রোগীর সম্পূর্ণ ইতিহাস জানা যেমন জরুরি, তেমনি মাড়ি ও পারিপার্শ্বিক স্বাভাবিক অবস্থাও নিশ্চিত করা প্রয়োজন।

লেখক : সম্পানিক উপদেষ্টা, ডেন্টাল বিভাগ,

বারডেম হাসপাতাল এবং কনসালটেন্ট, মুকুল ডেন্টাল ক্লিনিক, গ্রিন স্কয়ার, গ্রিন রোড, ঢাকা।



এই পাতার আরো খবর