ঢাকা, সোমবার, ১৯ নভেম্বর, ২০১৮

আজকের পত্রিকা

চট্টগ্রাম নগর মহিলা লীগ
পুলিশের সঙ্গে নেতা কর্মীদের হাতাহাতি
নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম

সম্মেলনে ঢুকতে না পারায় গতকাল হাসিনা মহিউদ্দিনের বিরোধী মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী ও কর্মীদের সঙ্গে পুলিশের হাতাহাতি, সড়ক অবরোধ, উত্তেজনা ও ধাক্কাধাক্কি হয়েছে। সম্মেলনের বাইরে অপেক্ষায় থাকা নেতা-নেত্রীদের তোপের মুখে পড়ে সম্মেলনে আসা প্রধান অতিথির গাড়িবহরও।

সম্মেলনস্থল নগরীর পাঁচলাইশের কিং অব চিটাগাং এ মহিলা আওয়ামী লীগের নেত্রী বেগম হাসিনা মহিউদ্দিন ও নমিতা আইচ অনুসারীদের মধ্যে এই ঘটনা। সম্মেলনে কাউন্সিলর কার্ড দেওয়া হয়নি মহিলা লীগের শীর্ষ অনেক নেত্রীকে। প্রত্যক্ষদর্শী জানান, সম্মেলনে প্রবেশ করতে না দেওয়ার প্রতিবাদে সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৩টা পর্যন্ত সম্মেলনস্থলের সামনে প্রতিবাদী অবস্থান শেষে বিক্ষুব্ধ নেত্রীরা ফিরে যান। সম্মেলনের প্রধান অতিথি কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা সংসদ সদস্য ফজিলাতুন্নেছা ইন্দিরা এবং উদ্বোধক মহিলা লীগের সহসভাপতি বেগম সাফিয়া খাতুনের গাড়ি ঘিরে ধরে নেতা-কর্মীরা বিক্ষোভ জানান। এ সময় আবারও পুলিশের সঙ্গে তাদের ধাক্কাধাক্কি হয়। একপর্যায়ে পুলিশ কয়েকজন মহিলাকে টেনেহিঁচড়ে সরিয়ে দেয়। তবে বিতর্কিত এ সম্মেলনে হাসিনা মহিউদ্দিন সভাপতি ও আনজুমান আরা চৌধুরীকে সাধারণ সম্পাদক হিসেবে ঘোষণা করা হয়।

 

উল্লেখ্য, কাউন্সিল কার্ড না পাওয়ার বিষয়টি সম্মেলনের আগের দিনই কেন্দ্রীয় নেত্রীদের অভিযোগ করেন আলোচ্য বিদ্রোহী নেত্রীরা। এ সময় কেন্দ্রীয় নেত্রীরা চট্টগ্রামের এই বিদ্রোহী নেত্রীদের অনায়াসে সম্মেলনে ঢুকতে পারবেন বলে আশ্বস্ত করেন। অথচ সম্মেলনের দুই অধিবেশনের কোনোটিতেই তারা ঢুকতে পারেননি।

মহিলা নেত্রী নমিতা আইচ বলেন, ১৯৪৮ সাল থেকে আমরা আওয়ামী লীগ করছি। আইভি রহমানের সঙ্গে আমরা রাজনীতি করেছি। উনি (হাসিনা মহিউদ্দিন) স্বঘোষিত সভাপতি। উনি কোনোদিন মহিলা লীগের সদস্যও ছিলেন না। অথচ উনি আমাদের অগ্রাহ্য করে সম্মেলন করেছেন।

তপতী সেনগুপ্তা বলেন, আমরা ২০০টি ডেলিগেট কার্ড আর ৫০টি কাউন্সিলর কার্ড চেয়েছিলাম। তারা শুধু আমরা যারা আগের কমিটিতে আছি তাদের কার্ড দিয়েছে।



এই পাতার আরো খবর