ঢাকা, রবিবার, ১৮ নভেম্বর, ২০১৮

আজকের পত্রিকা

প্রাণের মেলা প্রতিদিন
এক হাতে গোলাপ অন্য হাতে বই
মোস্তফা মতিহার
ভালোবাসার রং লেগেছিল বইমেলাতেও — জয়ীতা রায়

আগের দিন সোমবার আগুনঝরা ফাগুনের রঙে সেজেছিল গ্রন্থমেলা। আশাতীত বিকিকিনিতে প্রকাশকরাও সুখের হাসি হেসেছিলেন। আর ভালোবাসা দিবসে বসন্ত দিবসের বিকিকিনিকে ছাড়িয়ে যাওয়ার যে আশাবাদ তারা ব্যক্ত করেছিলেন, গতকাল ভালোবাসা দিবসেও প্রকাশকদের বিমুখ করেননি ভালোবাসার কপোত-কপোতীরা। ভালোবেসে প্রিয় মানুষকে ফুল উপহার দেওয়ার পাশাপাশি বইও উপহার দিয়েছেন প্রেমিকযুগলরা। উপহার     বিনিময়ের শ্রেষ্ঠ মাধ্যম হিসেবে বইকে বেছে নিয়েছিলেন বলে গতকাল ভালোবাসা দিবসে অমর একুশে গ্রন্থমেলার ১৪তম দিনটি ছিল শুধুই সফলতার গল্পে ভরা। এক হাতে গোলাপ, আরেক হাতে বই। ভালোবাসার প্রতীক ফুলের সঙ্গে বইকে সমান্তরালেই রেখেছিল ভালোবাসায় উন্মত্ত প্রেমিক-প্রেমিকারা। ফুল আর বই দুটিই যেন কাছে আসার, কাছে থাকার এবং সারাটা জীবন ভালোবাসার মন্দিরের সারথি হওয়ার প্রেরণা জুগিয়েছিল কপোত-কপোতীদের মধ্যে। শাহবাগ মোড় থেকে যে হাত দিয়ে প্রিয়ার মাথায় ফুল গুঁজে দিয়েছিলেন, স্বাধীনতার স্মৃতিবিজড়িত সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে এসে সেই হাতেই প্রিয়ার হাতে বই তুলে দিয়েছিলেন। শুধু উপহার দেওয়ার মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকেননি, প্রিয় মানুষকে বই উপহার দেওয়ার দৃশ্যটি স্মৃতির পাতায় ধরে রাখতে মোবাইলের ক্যামেরার সাহায্যও নিয়েছিলেন প্রেমে উন্মত্ত তারুণ্য। যেন প্রিয়জনের হাতে হাত, চোখে চোখ রেখে বইয়ের মধ্য দিয়ে প্রেমের সেতুবন্ধ তৈরির এক প্রাণান্ত চেষ্টা। অর্থাৎ প্রিয় লেখকের পছন্দের বইটি না কিনে বাড়ি ফেরেননি ভালোবাসার যুগলরা। ভালোবাসার উচ্ছলতা আর উচ্ছ্বাসের ঢেউ আছড়ে পড়েছে গ্রন্থমেলার দুই প্রাঙ্গণেই। অধ্যাপক এমাজউদ্দীন আহমদের দুটি বই : দি ইউনিভার্সেল একাডেমি থেকে প্রকাশিত হয়েছে শিক্ষাবিদ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক এমাজউদ্দীন আহমদের ‘গণতন্ত্রেও শত্রুমিত্র’ ও ‘গণতন্ত্র এখন’ নামের দুটি বই। বই দুটিতে লেখক দেশের গণতন্ত্রের বিশদ তুলে ধরেছেন। বই দুটি ইতিমধ্যে পাঠকদের হৃদয় জয় করতে সক্ষম হয়েছে বলে জানান প্রকাশনা সংস্থা দি ইউনিভার্সেল একাডেমির  স্বত্বাধিকারী মো. শিহাব উদ্দিন ভূঁইয়া। এর মধ্যে ‘গণতন্ত্র এখন’ বইটির মূল্য ৩৫০ টাকা ও ‘গণতন্ত্রের শত্রুমিত্র’র মূল্য ৩০০ টাকা। দুটি বইয়েরই প্রচ্ছদ করেছেন অরূপ মান্দী। মেলায় টাস্কফোর্সের অভিযান : পাইরেটেড বইয়ের বিরুদ্ধে অভিযান চালিয়ে নয়টি প্রকাশনীকে মৌখিকভাবে সতর্ক করে দিয়েছে টাস্কফোর্স। এ নয়টি প্রকাশনা সংস্থা হলো—হলি পাবলিকেশন্স, রেজা পাবলিকেশন্স, শিশুসাহিত্য, বই পড়ি, রাতুল গ্রন্থ প্রকাশ, মেলা, প্রিয়প্রকাশ, পিপিএমসি ও জোনাকী প্রকাশনী। মেলার ১৪তম দিনে গতকালই প্রথম অভিযান চালায় টাস্কফোর্স। ডিএমপি কমিশনারের মেলা দর্শন : মেলার ১৪তম দিনে গতকাল সন্ধ্যায় অমর একুশে গ্রন্থমেলা পরিদর্শনে আসেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া। এ সময় তিনি সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ও বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণ ঘুরে দেখেন। পরিদর্শন শেষে তিনি বলেন, ‘বইয়ের নজরদারির যে কথা উঠেছে সেটা সত্য নয়। নজরদারি করবে বাংলা একাডেমি। তবে কেউ ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দিলে এবং উসকানিমূলক লেখা প্রকাশ করলে সেটির বিষয়ে দেশের আইনানুযায়ী পুলিশ তার দায়িত্ব পালন করবে।’ নতুন বই : বাংলা একাডেমির তথ্যকেন্দ  থেকে প্রাপ্ত তথ্যানুযায়ী গতকাল অমর একুশে গ্রন্থমেলার ১৪তম দিনে ১৪৬টি নতুন বই প্রকাশিত হয়েছে এবং মোড়ক উন্মোচন মঞ্চে ২৩টি নতুন বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করা হয়েছে। মেলার প্রথম দিন থেকে শুরু করে ১৩ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বাংলা একাডেমির বিক্রয় কেন্দ্রসমূহে মোট বিক্রির পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৫০ লাখ ৯০ টাকা। গতকাল প্রকাশিত উল্লেখযোগ্য বই হলো—তাম্রলিপি থেকে প্রকাশিত গুলতেকিন খান অনূদিত কাব্যগ্রন্থ ‘দূর দ্রাঘিমায়’, অবসর থেকে ফরিদুর রেজা সাগরের ‘সেরা সাত ছোট কাকু’, ঐতিহ্য থেকে এসেছে ‘বঙ্গবন্ধুর বাণী’, বুলবুল সরোয়ারের ‘রুবাইয়াত’, আমীন আর রশীদের ‘জঙ্গিবাদ, গণতন্ত্র, আইনের শাসন’, বাতিঘর থেকে সমরেশ মজুমদারের ‘সোনার মোবাইল’, অনন্যা এনেছে ইমদাদুল হক মিলনের ‘রাত দুপুরে’, ভাষাচিত্র এনেছে আবু হাসান শাহরিয়ারের ‘১০০ প্রেমের কবিতা’। মূল মঞ্চ : বিকেল ৪টায় গ্রন্থমেলার মূল মঞ্চে অনুষ্ঠিত হয় ‘পঞ্চাশ ও ষাট দশকের একুশের সংকলন’ শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন প্রাবন্ধিক-গবেষক ড. ইসরাইল খান। আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন শিশুসাহিত্যিক আখতার হুসেন ও সাংবাদিক অজয় দাশগুপ্ত। সভাপতিত্ব করেন সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব কামাল লোহানী।



এই পাতার আরো খবর