ঢাকা, সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮

আজকের পত্রিকা

ঘুম থেকে উঠে ভুলে যাওয়া স্বপ্ন মনে রাখার উপায়!
অনলাইন ডেস্ক

বেশিরভাগ মানুষই রাতে দেখা স্বপ্নকে ঘুম থেকে উঠে মনে রাখতে পারেন না। মনোবিদদের মতে স্বপ্নের পুরোটা মনে রাখা সম্ভবও নয়। কিন্তু বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই দেখা যায়, ঘুম ভাঙার পরে স্বপ্নের রেশটুকু থেকে গেলেও সেই স্বপ্ন কিছুতেই মনে আসছে না। 

মনোবিদরা বিস্তর গবেষণা করেছেন এই বিষয়ে। তাদের মতে স্বপ্ন আমরা তখনই দেখি, যখন আমরা ঘুমের বিশেষ একটি স্তরে থাকি। আর সেই পর্যায়ের নাম ‘র‌্যাপিড আই মুভমেন্ট’ বা সংক্ষেপে আরইএম। এই সময়ে দেহ পুরোপুরি বিশ্রামে থাকে, কিন্তু মন স্বপ্নে ঘুরে বেড়ায়। রাতে যদি খুব দীর্ঘ ঘুম না-হয় এবং ঘুম যদি বার বার ভেঙে যায়, তা হলে স্বপ্ন দেখাও বাধাপ্রাপ্ত হবে। 

প্রতিটি মানুষের ৭-৮ ঘণ্টা ঘুম বিশেষ প্রয়োজন হয়। যারা খুব বেশি হলেও ৬ ঘণ্টা ঘুমান, তাদের পক্ষে স্বপ্ন মনে রাখা দুরূহ। কারণ স্বপ্ন আমরা আমাদের ঘুমের শেষ পর্যায়েই দেখি। সুতরাং, এই পর্যায়ে ঘুমকে নিয়ে যাওয়াটা সব থেকে আগে দরকার। এবার জেনে নিন, স্বপ্ন মনে রাখার আরও কিছু উপায়-

১। ভালো ঘুমের জন্য একটি আদর্শ পরিবেশ তৈরি করুন। আওয়াজ ও ব্যাঘাতের সম্ভাব্য উৎসগুলি থেকে দূরে থাকুন। প্রয়োজনে ইয়ারপ্লাগ ব্যবহার করতে পারেন। ঘরে আলো যাতে না ঢোকে, সেদিকে খেয়াল রাখুন।

২। যেখানে ঘুমাবেন, সেখানে হাতের কাছে একটা পেন ও রাইটিং প্যাড রেখে দিন। এমন জায়গায় রাখুন, যাতে প্রতিদিন আপনি হাত বাড়ালেই সেগুলোর নাগাল পান। ঘুম ভেঙেই স্বপ্লের যতটা আপনার মনে আছে, লিখে ফেলুন। কাগজ-কলমের বদলে টেপ রেকর্ডারও ব্যবহার করতে পারেন। সেক্ষেত্রে মুখে বলে নিতে হবে আপনার স্বপ্নের বিবরণ।

৩। অ্যালার্ম ঘড়ি সব সময়ে হাতের কাছে রাখবেন।। যদি দূরে রাখেন, তাহলে অ্যালার্ম বন্ধ করতে গিয়ে আপনি আপনার স্বপ্নকে ভুলে যেতে পারেন। সব থেকে ভাল হয়, অ্যালার্ম ছাড়া ঘুম থেকে ওঠার চেষ্টা করলে। কাউকে বলে রাখতে পারেন, মৃদু স্বরে ডেকে আপনার ঘুম ভাঙালোর জন্য। এতে স্বপ্ন মনে রাখা সহজ হয়।

৪। অ্যালার্ম ক্লকের গায়ে একটা কাগজে ‘কী স্বপ্ন দেখলাম আজ’ কথাটি লিখে সেঁটে রাখতে পারেন। তা হলে অ্যালার্ম বন্ধ করতে গিয়ে আপনি স্বপ্ন ভুলে যাবেন না।

৫। ঘুমাতে যাওয়ার আগে অ্যালকোহল, চকোলেট অথবা ঘুমের ওযুধ না খেলে স্বপ্ন মনে রাখা সহজতর হয়। ঘুমানোর আগে অবান্তর চিন্তা মাথা থেকে নামিয়ে দিন। ফোন বা ল্যাপটপ মাথার কাছে খোলা রাখবেন না। ঘুমানোর আগে মেল চেক করা বা সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং থেকে বিরত থাকুন। ধ্যান, ও মনঃসংযোগ কাজে আসবে।

৬। স্বপ্ন মনে রাখার সময়ে আপনাকে সচেতন থাকতে হবে। নিজেকেই মনে মনে বোঝাতে হবে, আপনি স্বপ্ন মনে রাখতে চাইছেন।

৭। ঘুমাতে যাওয়ার আগে বই পড়ুন। অথবা কোনও সমস্যার কথা ভাবুন। স্বপ্ন আপনাকে ওই সমস্যার বিষয়ে সাহায্য করতেই পারে।

৮। স্বপ্ন মনে রাখার সময়ে প্রথম থেকে কী ঘটেছিল ভাবতে যাবেন না। পিছন থেকে ভাবুন।

৯। ঘুম থেকে ওঠার সময়ে তাড়াহুড়ো করবেন না।  

বিডি-প্রতিদিন/ ৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭/ আব্দুল্লাহ সিফাত-১৩



এই পাতার আরো খবর