ঢাকা, শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮

আজকের পত্রিকা

মাকড়শা ভর্তি আলমারিতে ২ বছর আটক কিশোরী
অনলাইন ডেস্ক
প্রতীকী ছবি

যৌনতায় সম্মতি ছিল না। তাই শাস্তি হিসাবে কিশোরীকে মাকড়শায় ভরা আলমারিতে আটকে রাখত এক যুবক। ২০০৯ থেকে ২০১১ পর্যন্ত চলেছিল এই নির্যাতন। সেই যুবকের নাম লিউক। 

সম্প্রতি সামনে এসেছে এই ভয়াবহ ঘটনা। অভিযুক্ত ওই যুবককে চার বছরের জন্য কারাদণ্ডের নির্দেশ দিয়েছে ইংল্যান্ডের গ্লোস্টার ক্রাউন কোর্ট। ঘটনার সময় তার বয়স ছিল ১৪ বছর। অপরদিকে মেয়েটির বয়স ছিল ৯। সম্প্রতি নিজের মায়ের কাছে নিজের সঙ্গে ঘটে যাওয়া ঘটনাটি জানায় ওই কিশোরী। সঙ্গে সঙ্গে অভিযোগ দায়ের করেন তার মা। 

মামলাটির শুনানি চলাকালীন বিচারক জামির ট্যাবর কিউসি অভিযুক্তকে বলেন, ‘‌অপরাধ করার সময় যদি তুমি প্রাপ্তবয়স্ক হতে তাহলে তোমার দ্বিগুণ সাজা হতো।’‌ 

এই মামলায় নির্যাতিতার আইনজীবী বলেন, ‘‌অভিযুক্ত যুবক মেয়েটিকে জোর করে চুম্বন করে। তারপর তার সঙ্গে জোর করে যৌন সঙ্গম করতে চায়। কিন্তু মেয়েটি বাধা দিলে তাকে মাকড়সা ভর্তি একটি অন্ধকার আলমারিতে আটক করে রাখত সে।’‌ 

তিনি আরও বলেন, ‘‌ওই বয়সে মেয়েটির পক্ষে বোঝা সম্ভব হয়নি, তার সঙ্গে কী হচ্ছে। পরে একটি ম্যাগাজিনে অন্য নারীদের জীবনের কথা পড়তে গিয়ে নিজের সঙ্গে ঘটে যাওয়া ঘটনার কথা বুঝতে পারে সে।’‌ 

নির্যাতিতা কিশোরী জানান, ‘‌ওই ঘটনার পর আমি প্রচণ্ড আতঙ্কিত হয়ে পড়েছিলাম। তাই ওই ভয়াবহ ঘটনাটির কথা ভুলতে ১২ বছর বয়সে মাদক নিতে শুরু করি। কিন্তু তাতেও ওই ঘটনাটির কথা ভুলতে না পেরে কয়েকবার আত্মহত্যারও চেষ্টা করি।’‌  ‌

বিডি-প্রতিদিন/ ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭/ আব্দুল্লাহ সিফাত-৯



এই পাতার আরো খবর