ঢাকা, রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮

আজকের পত্রিকা

কুয়েতে গভীর শ্রদ্ধায় একুশে ফেব্রুয়ারি পালিত
মঈন উদ্দিন সরকার সুমন, কুয়েত

একুশ মোদের অহংকার, একুশ মোদের চেতনা, আমরাই শ্রেষ্ঠ জাতি। বিশ্বের কোথাও আর ভাষার জন্য প্রাণ দেয়ার ইতিহাস নেই। এই বাংলা ভাষার জন্য শহীদ হয়েছেন সালাম, বরকত, রফিক, জব্বার এর মত বীরেরা, শ্রেষ্ঠ করেছে বাঙ্গালি জাতিকে বিশ্বের মানচিত্রে। তাইতো বাংলা ভাষা আন্তর্জাতিক ভাষা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হচ্ছে বহির্বিশ্বে। 

কুয়েত প্রবাসীরাও ভাষা শহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানাতে একুশে ফেব্রুয়ারি যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করেছেন। ২১ ফেব্রুয়ারি থেকে ২৮ ফেব্রুয়ারি প্রতিদিনই কোন না কোন সামাজিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিকসহ বিভিন্ন সংগঠন কুয়েতে পালন করবে এই দিবসটি। 

মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন উপলক্ষে ২১শে ফেব্রুয়ারির প্রথম প্রহরে কুয়েতে বাংলাদেশ দূতাবাস প্রাঙ্গণে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। এর মধ্য দিয়ে দিনের কর্মসূচি শুরু হয়। পরে দূতাবাস হলে পবিত্র কুরআন থেকে তিলাওয়াত, মহান ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন, প্রামান্যচিত্র প্রদর্শন ও বাংলাদেশ থেকে প্রেরিত রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী ও পররাষ্ট্রমন্ত্রীর পাঠানো বাণী পাঠ করে শোনানো হয়। 

বানী পাঠ করেন যথাক্রমে কাউন্সিলর (শ্রম) আবদুল লতিফ খান, প্রথম সচিব জহীরুল ইসলাম খান, ব্যাংক কর্মকর্তা সায়েত হোসেন পাটোয়ারী, প্রশাসনিক কর্মকর্তা মিজানুর রহমান। কাউন্সিলর আনিসুজ্জামানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এস এম আবুল কালাম। আলোচনা সভায় প্রবাসীরাও বক্তব্য রাখেন। বক্তব্যে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের প্রেক্ষাপট ও বায়ান্নর ভাষা আন্দোলনের ইতিহাস তুলে ধরেন।

বিডি প্রতিদিন/২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭/ফারজানা



এই পাতার আরো খবর