Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৫:৪৬ অনলাইন ভার্সন
অযত্ন অবহেলায় রাবির সুবর্ণ জয়ন্তী টাওয়ার
রাবি প্রতিনিধি:
অযত্ন অবহেলায় রাবির সুবর্ণ জয়ন্তী টাওয়ার

দীর্ঘ দিন সংস্কারের অভাবে সৌন্দর্য হারিয়ে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ঐতিহ্যবাহী সুবর্ণ জয়ন্তী টাওয়ার। অবহেলা ও অযত্নে সংকটপূর্ণ অবস্থা দেখা দিয়েছে টাওয়ারটির।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের পঞ্চাশ বছর পূর্তিকে স্মরণীয় করে রাখার জন্য ২০০৩ সালে ২৫ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মাণ করা হয় এই সুবর্ণ জয়ন্তী টাওয়ার। রাজশাহীর সন্তান মৃণাল হক ছিলেন এই নান্দনিক স্থাপনার ভাস্কর। 

বিশ্ববিদ্যালয় সিনেট ভবন ও শহীদ শামসুজ্জোহা কবরস্থানের সামনে অবস্থিত এই সুবর্ণ জয়ন্তি টাওয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের অস্তিত্বের প্রতীক। টাওয়ারের সাথে লাগানো আছে ইস্পাতের তৈরী একটি ম্যুরাল। যার মাধ্যমে তুলে ধরা হয়েছে সভ্যতার ক্রমবিকাশ। ম্যুরালটি এখন মরিচা পড়ে নষ্ট প্রায়। সোনালী রংয়ের টাওয়ারটির সাদা এবং কালো রংয়ে পরিণত হয়েছে। জং ধরে খসে পড়ছে ম্যুরালের বিভিন্ন অংশ। ম্যুরালের বেদীতে জমেছে ময়লা-আবর্জনার স্তুপ।

মূল টাওয়ারের পূর্ব পাশে রয়েছে একটি দেওয়াল। দেয়ালের নাম ‘ইস্পাতের কান্না’। এই দেওয়ালে তৈরী করা হয়েছে মালবাহী ভ্যান, ঘোড়ার গাড়ি, মানুষ, সাইকেল, সূর্যমুখী ফুল এবং শহীদ মিনার। নিখুত হাতের এসব কারুকার্য আর স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে না। লোহার তৈরী এসব কারুকার্যের সব জায়গা এখন মরিচায় পরিপূর্ণ। বিভিন্ন অংশ থেকে খসে পড়ছে এসব নকশা। অযত্নে, অবহেলায় আর সংস্কারের কোনো উদ্যোগ না থাকায় নষ্ট হতে বসেছে গৌরবময় এই টাওয়ারটি।

এমন অবস্থা দাঁড়ানোর পরও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন টাওয়ারটি সংস্কারের বিষয়ে এখন কিছু ভাবছে না বলে জানিয়েছেন রেজিষ্ট্রার অধ্যাপক মুহাম্মদ এন্তাজুল হক। তিনি বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের অবকাঠামো উন্নয়নের জন্য অনেক পরিকল্পনা আছে। সে অনুযায়ী টাওয়ারটির পাশে ১০ তলার একটি প্রশাসনিক ভবন নির্মাণ করা হবে। এই ভবন নির্মাণের সময় টাওয়ারটি সংস্কার করা হবে।’


বিডি প্রতিদিন/১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৭/হিমেল

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow