Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ২১ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, সোমবার, ২১ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : ১৩ মার্চ, ২০১৭ ১৬:৫৭ অনলাইন ভার্সন
আপডেট :
ইবির ভর্তি বাতিলের সিদ্ধান্ত হাইকোর্টে স্থগিত
ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি:
ইবির ভর্তি বাতিলের সিদ্ধান্ত হাইকোর্টে স্থগিত

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষে ফলিত বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি অনুষদভুক্ত ‘এফ’ ইউনিটে ভর্তি হওয়া ১০০ শিক্ষার্থীর ভর্তি বাতিলের সিদ্ধান্ত স্থগিত করেছে হাইকোর্ট। বিশ্ববিদ্যালয় সিন্ডিকেটের ভর্তি বাতিলের সিদ্ধান্ত আগামী দুই মাসের জন্য স্থগিত করা হয়।

‘এফ’ ইউনিটে (গণিত ও পরিসংখ্যন) ভর্তি হওয়া ৮৮ জন শিক্ষার্থীর করা আবেদনের প্রেক্ষিতে সোমবার বিচারপতি জুবায়ের রহমান চৌধুরী ও বিচারপতি ইকবাল কবিরের স্বমন্বয়ে গঠিত বঞ্চ এই আদেশ দেন। আবেদনকারীদের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এস এম মনিরুজ্জামান।

ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল সাংবাদিকদের জানান, ‘ইবির এফ ইউনিট (গণিত ও পরিসংখ্যান) এর ভর্তি পরীক্ষা গত বছরের ৭ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হয়। ওই পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগ উঠলে বিশ্ববিদ্যালয় সিন্ডিকেট তা বাতিল করে নতুন করে পরীক্ষা নেওয়ার নেওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহন করে। তবে ভর্তি বাতিলের সিদ্ধান্তের আগেই ওই দুটি বিভাগে ১০০ জন শিক্ষার্থীকে ভর্তি করা হয়। ’
তিনি আরো জানান, ‘ভর্তি পরীক্ষা বাতিল হওয়ায় ক্ষতিগ্রস্ত শিক্ষার্থীরা হাইকোর্টে রিট করেন। আদালত সেসব শিক্ষার্থীদের আগামী ১৬ মার্চ অনুষ্ঠিতব্য নতুন ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার সুযোগ দিতে বলেছেন। তবে ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের অবস্থান কী হবে তা চূড়ান্ত আদেশে জানা যাবে।

উল্লেখ্য, গত বছরের ৭ নভেম্বর এফ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। পরীক্ষা শেষে বিভিন্ন মহল থেকে এই ইউনিটের প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগ ওঠে। অভিযোগের ভিত্তিতে গত ২৫ জানুয়ারি তিন সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। তদন্ত প্রতিবেদনের উপর ভিত্তি করে গত ৬ মার্চ বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৩৩ তম সিন্ডিকেট সভায় ‘এফ’ ইউনিটে ভর্তি হওয়া ১০০ শিক্ষার্থীর ভর্তি বাতিলের সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়। একই সাথে আগামী ১৬ মার্চ পূনরায় ভর্তি পরীক্ষা গ্রহনের সিদ্ধান্ত হয়।

বিডি প্রতিদিন/ সালাহ উদ্দীন

আপনার মন্তব্য

up-arrow