Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ২০ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, রবিবার, ২০ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : ১৬ মার্চ, ২০১৭ ১৯:৪১ অনলাইন ভার্সন
আপডেট :
জাবি ছাত্রের বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ
জাবি প্রতিনিধি:
জাবি ছাত্রের বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের এক ছাত্রের বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ করেছে একই বিভাগের এক ছাত্রী। আবার ওই ছাত্রীর বিরুদ্ধে পাল্টা মানহানি ও শারীরিক প্রহারের অভিযোগ তুলেছেন ‘অভিযুক্ত’ ছাত্র।

আজ বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪৫তম ব্যাচের এক ছাত্রী বিচারের দাবিতে উপাচার্য বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। আর ৪৩ আবর্তনের ওই ছাত্র প্রক্টর বরবার লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

ছাত্রী তার অভিযোগ পত্রে উল্লেখ করেন, “গত ১৫ জুলাই ২০১৬ তারিখে রিহার্সেলের কথা বলে আমাকে জহির রায়হান মিলনায়তনের ল্যাব কক্ষে ডেকে নিয়ে যাওয়া হয়। এক পর্যায়ে কক্ষের দরজা বন্ধ করে দিয়ে আমার উপর যৌন নিপীড়ন করা হয়। এক পর্যায়ে আমি ছেলেটিকে ধাক্কা দিয়ে সরিয়ে ল্যাব থেকে বের হয়ে বাসায় চলে যাই। পরবর্তীতে আমি ছেলেটির দ্বারা অনেক মানসিক হেনস্তার সম্মুখিন হই। আমাকে বিভিন্ন ভাবে ভয় দেখানো হয়। ছেলেটির ভয় ভীতির আশঙ্কায় আমি কাউকে কিছু বলতে পারিনি এবং আমি বিভাগে দীর্ঘদিন আসা বন্ধ রাখি। তারপর ১৪ই নভেম্বর ২০১৬ তারিখে আমাকে ভয় দেখিয়ে ফোন করে হলের সামনে ডেকে নিয়ে যায়। আমাকে জোরপূর্বক বৃন্দাবনের ভিতরে নিয়ে যায় এবং আমার সাথে পুনরায় ধস্তাধস্তি শুরু করে। এমতাবস্তায় আমি আবারও নিজেকে বাঁচিয়ে হলে চলে যাই। ” যৌন নিপীড়নের এ ঘটনার বিচার করে শাস্তি প্রদান ও আজীবন বহিস্কার করে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহণ করার দাবি জানান ওই ছাত্রী।

এদিকে ওই ছাত্র প্রক্টর বরাবর পাল্টা লিখিত অভিযোগ পত্রে লিখেছেন, অভিযোগের প্রেক্ষিতে বিভাগের সকল শিক্ষার্থীদের নিয়ে একটি মিটিং অনুষ্ঠিত হয়। সিনিয়ররা বিষয়গুলো সামধান করার আশ্বাস দেওয়ার পরেও ওই মেয়ে এবং তার বান্ধবীরা আমার উপর চড়াও হয় এবং আমাকে প্রাণনাশের হুমকি দেয়।  

এ বিষয়ে অভিযুক্ত ছাত্র জানান, এ জাতীয় কোন ঘটনা ওই মেয়ের সাথে ঘটেনি। বরং মেয়েটি আমাকে পছন্দ করে, যার ফলে সে এ মিথ্যা অভিযোগ তুলেছে। কারণ সে জানতে পেরেছে আমি নতুন একটি রিলেশন করেছি।  

এ ব্যাপারে বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ইউসুফ হাসান বলেন, বিষয়টি আমরা শুনেছি। অভিযোগ পত্র খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ফারজানা ইসলাম বলেন, “যদি ঘটনা সত্যি হয়, তাহলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। ”

বিডি প্রতিদিন/এ মজুমদার

 

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow