Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ১৫:৩৮ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ১৫:৪৬
রাবি অধ্যাপককে পেটাল ইন্টার্ন চিকিৎসক; মহাসড়ক অবরোধ
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি
রাবি অধ্যাপককে পেটাল ইন্টার্ন চিকিৎসক; মহাসড়ক অবরোধ

সামান্য ধাক্কা লাগার ঘটনার জের ধরে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) আইন বিভাগের এক শিক্ষককে মারধরের ঘটনায় ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়ক তিন ঘণ্টা অবরোধ করে রাখে শিক্ষার্থীরা।

বৃহস্পতিবার বেলা ১১টা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে রাস্তা অবরোধ করে তারা বিক্ষোভ সমাবেশ শুরু করে।

পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য মারধরের ঘটনায় জড়িতদের দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দিলে ১টা ৫০ মিনিটে শিক্ষার্থীরা মহাসড়ক অবরোধ কর্মসূচি প্রত্যাহার করে প্রশাসন ভবনের সামনে অবস্থান নেয়। এ ঘটনায় ১টা ৪৫ মিনিটে বিভিন্ন রুটে চলা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসগুলোও বন্ধ ছিল।

মারধরের শিকার শিক্ষক বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক এটিএম এনামুল জহির। তিনি প্রধান ফটকের সামনে গিয়ে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ক্লাসে ফিরে যাওয়ার আহ্বান জানালেও শিক্ষার্থীরা আন্দোলন চালিয়ে যায়। এরপর আইন বিভাগের অন্যান্য শিক্ষক, প্রক্টর, ছাত্র উপদেষ্টা, বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ, পুলিশের ঊর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ বারবার আশ্বাস দিয়েও তাদের আন্দোলন থেকে পিছু হটাতে পারেনি। তারা এ ঘটনায় জড়িতদের বহিষ্কার ও আইনানুগ শাস্তি না হওয়া পর্যন্ত বিক্ষোভ চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছিলেন।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা বলেন, মেয়ের অসুস্থতার জন্য বুধবার বিকেলে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। মেয়ের জন্য ওষুধ আনার সময় এক ইন্টার্ন চিকিৎসকের সঙ্গে ধাক্কা লাগে। একপর্যায়ে চিকিৎসকের সঙ্গে কথাকাটাকাটি হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক হিসেবে নিজেকে পরিচয় দেবার পরেও চিকিৎসকটি তার কোন কথা শোনেনি। ফোন করে অন্যান্যদের ডেকে একপর্যায় স্যারকে বেধড়ক মারধর করে। যারা একজন পিতৃতুল্য শিক্ষককে মারধর করেছে তাদেরকে বহিষ্কার করতে হবে এবং আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান।

এসময় শিক্ষার্থীরা দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন এবং ক্লাস বর্জন কর্মসূচি চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন।

শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র উপদেষ্টা অধ্যাপক জান্নাতুল ফেরদৌস বলেন, তোমরা অযথা প্রধান সড়ক বন্ধ করে জনগণের হয়রানি বৃদ্ধি করো না। তোমরা ফিরে যাও আমরা ব্যবস্থা নিব।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর বলেন, আমি ঘটনাটি শুনে শোকাহত, কিন্তু তোমাদের মাথা গরম করলে হবে না। তোমরা ঘরে ফিরে যাও। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন এর সুষ্ঠু বিচার করবে।

এ বিষয়ে বেলা ২টায় মতিহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মেহেদী হাসান বলেন, শিক্ষার্থীরা মহাসড়ক অবরোধ প্রত্যাহার করেছে।

এর আগে গত বুধবার রাত সাড়ে ১১টায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ৩০ নম্বর ওর্য়াডের সামনে দিয়ে যাওয়ার সময় কর্তব্যরত এক নারী চিকিৎসকের সঙ্গে ধাক্কা লাগে শিক্ষক এনামুল জহিরের। এতে ওই ইন্টার্ন চিকিৎসক তাকে অপমানজনক কথা বলে। কথার পরিপ্রেক্ষিতে ওই অধ্যাপক তাকে ‘ননসেন’ বললে ওই ইন্টার্ন অন্য চিকিৎসকদের ডেকে নিয়ে এসে তাকে মারধর করে।

তবে ওই নারী ইন্টার্ন চিকিৎকের অভিযোগ, তাকে খারাপ ভাষায় গালি দেওয়া হয়েছে। সেজন্যই এমন ঘটনা ঘটেছে। আর ওই শিক্ষকের দাবি তিনি কোন খারাপ ভাষায় গালি দেননি।

বিডি-প্রতিদিন/ সালাহ উদ্দীন

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow