Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ১৩ এপ্রিল, ২০১৮ ১৮:১৬ অনলাইন ভার্সন
বৈশাখের বর্ণিল সাজে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়
ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি,
বৈশাখের বর্ণিল সাজে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়
bd-pratidin

প্রতি বছরের মতো এবারো বৈশাখকে বরণ করেত মেতে উঠেছে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়। বাংলা নববর্ষকে বরণ করতে সবুজ ঘেরা এই ক্যাম্পাসে চলছে বর্ষবরণের ব্যাপক প্রস্তুতি। বাঙালি সাংস্কৃতিকে ফুটিয়ে তুলতে শিক্ষার্থীদের সময় পার হচ্ছে অক্লান্ত পরিশ্রমের মধ্য দিয়ে। 

বিভিন্ন বিভাগ ও সংগঠন সমূহ পৃথকভাবে বর্ষবরণ করতে তৈরী করছে ব্যানার, ফেস্টুন, মঞ্চসজ্জা ও আল্পনার কাজ। এছাড়া মঙ্গল শোভাযাত্রায় বাঙালির ঐতিহ্যকে তুলে ধরতে তৈরী করা হচ্ছে বিভিন্ন জিনিসপ্রত্র। 

প্রাণের এই উৎসবকে ঘিরে প্রতি বছরের ন্যায় এবারও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন, বিভিন্ন বিভাগ, সামাজিক-সাংস্কৃতিক ও সেচ্ছাসেবী সংগঠন হাতে নিয়েছে নানা আয়োজন। বাংলা নববর্ষ ১৪২৫ উদযাপন উপলক্ষে ইতোমধ্যে তিন দিনের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। 

আগামী শনিবার (১৪ এপ্রিল) মঙ্গল শোভাযাত্রার মধ্য দিয়ে শুরু হবে এ কর্মসূচি। যা চলবে আগামী ১৬ এপ্রিল পর্যন্ত। কর্মসূচির মধ্যে মঙ্গল শোভাযাত্রা, বৈশাখী ও বিজ্ঞান মেলা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও  গ্রাম-বাংলার ঐতিহ্যবাহী লাঠিখেলা উল্লেখযোগ্য।    

বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, বর্ষবরণ উপলক্ষে শনিবার সকাল সাড়ে ৯টায় উপাচার্য অধ্যাপক ড. হারুন উর রশিদ আসকারীর নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত হবে মঙ্গল শোভাযাত্রা। মঙ্গল শোভাযাত্রায় উপস্থিত থাকবেন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. শাহিনুর রহমান, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. সেলিম তোহা, রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) এসএম আব্দুল লতিফ। এসময় আরো উপস্থিত থাকবেন বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন অনুষদের ডিন, বিভাগীয় সভাপতি, হল প্রভোস্ট, প্রক্টর, ছাত্র-উপদেষ্টা ও অফিস প্রধানবৃন্দ। 

মঙ্গল শোভাযাত্রাটি ক্যাম্পাসের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে বাংলা মঞ্চে গিয়ে শেষ হবে। এরপর সকাল ১০টায় সেখানে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও ৩ দিনব্যাপী বৈশাখী মেলা ও বিজ্ঞান মেলার উদ্বোধন করা হবে। 

সাংস্কৃতিক উপ-কমিটির আহবায়ক ও ব্যবস্থাপনা বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক ড. জাকারিয়া রহমানের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. হারুন উর রশিদ আসকারী। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. শাহিনুর রহমান, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. সেলিম তোহা, রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) এসএম আব্দুল লতিফ প্রমুখ।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের প্রথম পর্ব দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত এবং দ্বিতীয় পর্ব দুপুর ৩টা হতে রাত ৮ টা পর্র্যন্ত চলবে। এদিকে পহেলা বৈশাখে কেন্দ্রীয় অনুষ্ঠান চলাকালে কোন বিভাগ, হল ও সাংস্কৃতিক সংগঠনকে অনুষ্ঠান না করার জন্য অনুরোধ জানিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।  

১৪ এপ্রিল শনিবার হতে ১৬ এপ্রিল সোমবার পর্যন্ত চলবে বৈশাখী ও বিজ্ঞান মেলা। প্রতিদিন সকাল ১০ টা হতে মধ্যাহ্ন বিরতিসহ রাত ৮টা পর্যন্ত চলবে এ মেলা। এর মধ্যে ১৫ ও ১৬ এপ্রিল বিকাল ৩টা হতে রাত ৮টা পর্যন্ত বাংলামঞ্চে  বিভিন্ন বিভাগ,  আবসিক হল ও অতিথি শিল্পীদের পরিবেশনায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হবে।

এছাড়া ১৬ এপ্রিল সকাল সাড়ে ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের খেলার মাঠে গ্রাম-বাংলার ঐতিহ্যবাহী লাঠিখেলা অনুষ্ঠিত হবে। সবশেষে বৈশাখী ও বিজ্ঞান মেলা উদযাপনের সমাপনী দিনে লটারী ড্র অনুষ্ঠিত হবে। 

বর্ষবরণের প্রস্তুতি ও সার্বিক বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ও বৈশাখী-বিজ্ঞান মেলা উদযাপন উপ কমিটির আহবায়ক অধ্যাপক ড. মাহবুবর রহমান বলেন, ‘ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে এবার বৈশাখী উদযাপন উপলক্ষে ব্যাপক কর্মসূচী গ্রহন করা হয়েছে। বৈশাখী ও বিজ্ঞানের সমন্বয় সাধনের জন্য এবারই প্রথম বৈশাখী মেলার পাশাপাশি বিজ্ঞান মেলার আয়োজন করা হয়েছে। ইতোমধ্যে প্রস্তুতি প্রায় শেষের দিকে। বাঙালীর এই প্রাণের উৎসব সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে নিচ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে।’


বিডি প্রতিদিন/আব্দুল্লাহ সিফাত তাফসীর ‌‌

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow