Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১৫:৩৩ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১৫:৩৭
তাস খেলা নিয়ে হামলা: জবির দুই ছাত্র বহিষ্কৃত
জবি প্রতিনিধি
তাস খেলা নিয়ে হামলা: জবির দুই ছাত্র বহিষ্কৃত

তাস খেলতে বসতে না দেয়ায় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের নারী শিক্ষার্থীসহ ৩ জনের উপর হামলার ঘটনায় দুই শিক্ষার্থীকে সাময়িক বহিষ্কার করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। বহিষ্কৃত শিক্ষার্থী দর্শন ও কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের মেহেদী হাসান ও মাসফিক খান আদর।

আজ মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয় জনসংযোগ, তথ্য ও প্রকাশনা দফতরের সহকারি পরিচালক মোহাম্মদ ফিরোজ আলম স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ১৩ সেপ্টেম্বর ‘দূর্জয়’ বাসে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের গ্রুপ স্টাডিরত ৬ জন শিক্ষার্থীকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ এবং মারধর করার ঘটনায় প্রাথমিক তদন্ত রিপোর্টের সম্পৃক্ততার প্রমাণ পাওয়ায় এবং এহেন আচরণ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীসুলভ নয় ও শৃঙ্খলাপরিপন্থী বিধায় দর্শন বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের মেহেদী হাসান (ই১৬০১০৬০৪৮) এবং কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের মাসফিক খান আদর (ই১৬০৩০৫০৩৭)-কে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ১৩ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটকের পাশে দূর্জয় বাসে গ্রুপ স্টাডি করতে যায় গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ স্নাতকোত্তর নবম ব্যাচের ৬ শিক্ষার্থী। এসময় কতিপয় ছাত্র এসে নিজেদের ছাত্রলীগকর্মী বলে তাদেরকে আসন থেকে উঠে যেতে বলে এবং এই জায়গায় নিজেরা ‘তাস খেলবে’ বলে জানায়। এসময় তাদের ছাত্রত্ব সম্পর্কে জানতে চাইলে তারা নিজেদের ছাত্রলীগ কর্মী ও ১২ ব্যাচের শিক্ষার্থী বলে পরিচয় দেয়। এনিয়ে বাকবিতণ্ডা হলে সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থীদের অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ এবং বেধড়ক মারধর করে আদর (সিএসই ১২ব্যাচ), অর্ণব (অন্য ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কৃত), শিবলি ও শান্ত (ম্যানেজমেন্ট ১২ ব্যাচ), পার্থ (ভূগোল ১২ব্যাচ), মেহেদি (দর্শন ১২ ব্যাচ), ফুয়াদ (প্রাণিবিদ্যা ১২ ব্যাচ) নামের কয়েকজন ছাত্রলীগকর্মী।

এই ঘটনায় আহত হয়েছেন গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের ৯ম ব্যাচের শিক্ষার্থী রিয়াজ রহমান, মো. সাব্বির হাসান, ফয়জুন্নাহার আক্তার জিনিয়া ও চ্যানেল নাইনের স্টাফ রিপোর্টার রিয়াজ রহমান।

বিডি প্রতিদিন/ফারজানা

আপনার মন্তব্য

up-arrow