Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২২:০৭ অনলাইন ভার্সন
বিভিন্ন মেয়াদে চবির ১১ শিক্ষার্থী বহিষ্কার
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি:
বিভিন্ন মেয়াদে চবির ১১ শিক্ষার্থী বহিষ্কার

বিভিন্ন মেয়াদে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ১১ শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। আজ মঙ্গলবার (২৫ সেপ্টেম্বর) বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর আলী আজগর চৌধুরী সাংবাদিকদের এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, প্রক্টরিয়াল বডির সুপারিশক্রমে উপাচার্য নিজস্ব ক্ষমতাবলে এ আদেশ দিয়েছেন। পরবর্তীতে বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব রেসিডেন্স হেলথ অ্যান্ড ডিসিপ্লিনারি কমিটিতে এটি উত্থাপন করা হবে। 

তিনি আরো বলেন, গত ১০ সেপ্টেম্বর চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির সদস্য মিনহাজুল ইসলাম তুহিনকে মারধরের ঘটনায় ইংরেজী বিভাগের ২০১৩-১৪ সেশনের শিক্ষার্থী মাহমুদুল হাসান রুপককে ১ বছর, ইতিহাস বিভাগের ২০১৬-১৭ সেশনের সাব্বির হোসেন ও রাজিবুল আলম এবং মার্কেটিং বিভাগের ২০১৭-১৮ সেশনের তৈমুর হোসেনকে ২ মাসের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে।

এছাড়াও গত ৯ সেপ্টেম্বর যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী সালাউদ্দীন চৌধুরী এবং কম্পিউটার সায়েন্স বিভাগের সান্তনু নাথকে লেডিস ঝুঁপড়ির সামনে মারধরের ঘটনায় ইতিহাস বিভাগের ২০১৩-১৪ সেশনের এমাদ উদ্দীন, পদার্থবিদ্যা বিভাগের ২০১৭-১৮ সেশনের লিপটন দাশ, ইসলামের ইতিহাস বিভাগের ২০১৬-১৭ সেশনের সালাহউদ্দীন সাজ্জাদ, একই সেশনের লোক প্রশাসন বিভাগের  ইব্রাহিম খলিলকে ২ মাসের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে।

এদিকে,গত ৩০ জুলাই মেরিন সায়েন্স বিভাগ ও আমানাত হলের আবাসিক ছাত্র জাহিন খন্দকারের রুম থেকে ল্যাপটপ, ক্যামেরা চুরির ঘটনায় একই বিভাগের ২০১৫- ১৬ সেশনের রিফাত হাসান এবং একই সেশনের উদ্ভীদ বিজ্ঞান বিভাগের কাউসার ইবনে হাসানকে ৬ মাসের বহিষ্কার করা হয়েছে।

অন্যদিকে, গত ২৯ মার্চে সোহরাওয়ার্দী হলে ইতিহাস বিভাগের গিয়াসউদ্দীন ইমরানকে মারধরের ঘটনায় আধুনিক ভাষা ইনিস্টিটিউটের সামদানি রহমানকে ১ বছরের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে। এর আগে সে একজন শিক্ষার্থী ও তার অভিভাবককে মারধর করে।

সাংবাদিককে মারধরের ঘটনায় শুধু ২ মাস বহিষ্কারের বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর আলী আজগর চৌধুরী বলেন, যাদেরকে দুই মাসের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে তারা আমাদের কারণ দেখিয়েছেন যে তারা অন্যের প্ররোচনায় এ ঘটনা করতে বাধ্য হয়েছেন। এজন্য তাদের শাস্তি কমিয়ে আনা হয়েছে। কিন্তু আগামীতে যদি তারা এরকম কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ক্যাম্পাসে ঘটায় তাহলে এমনও হতে পারে তাদেরকে আজীবন বহিষ্কার করা হবে।  


বিডি প্রতিদিন/হিমেল

আপনার মন্তব্য

up-arrow