Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : সোমবার, ৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:১১
ক্যারিয়ার কর্নার
ক্যারিয়ার ডেস্ক

স্পেশালিটি অর্জন : আজকাল অধিকাংশ কোম্পানিতেই স্পেশালিস্টদের জয়জয়কার। স্পেশালিস্ট হলো কোনো নির্দিষ্ট বিষয়ে ভালো দক্ষতা অর্জনকারী ব্যক্তি।  উদাহরণস্বরূপ বলা যায়, আপনি হয়তো অ্যাকাউন্টিং বিষয়ে পড়াশোনা করছেন। অর্থাৎ অ্যাকাউন্টিংয়ের প্রায় সবদিক আপনার নখদর্পণে থাকা মানেই এ বিষয়টির ওপর আপনার স্পেশালাইজেশন রয়েছে। তাই বিষয়টিতে আপনি একজন স্পেশালিস্ট। কোম্পানিগুলো স্পেশালিস্ট নিয়োগের প্রতিই বেশি আগ্রহী। তাছাড়া স্পেশালিস্ট বা এক্সপার্টদের জন্য বেশ উচ্চ বেতনের চাকরির অফার করে থাকে । তাই এ দিকটাতেই দক্ষতা অর্জন জরুরি। কম্পিউটারে দক্ষতা : আপনি ছোট-বড় যে ধরনের চাকরি প্রত্যাশীই হোন না কেন আপনাকে অবশ্যই যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে হবে। সে কারণে কম্পিউটার সম্পর্কে আপনার স্বচ্ছ এবং সঠিক ধারণা থাকা বাঞ্ছনীয়। বর্তমানে সব ধরনের চাকরিতেই কম্পিউটার লিটারেসি খোঁজা হয়। তাই কম্পিউটারে দক্ষতা ছাড়া ভালো একটা চাকরির আশা করা নিতান্তই বোকামি হয়ে যাবে।

টেকনিক্যাল দক্ষতা : আমাদের দেশে বেকারের তুলনায় চাকরির ক্ষেত্র নিতান্তই সামান্য। এই প্রতিযোগিতামূলক বাজারে আপনার চাকরি নিশ্চিত করার জন্য নিজেকে টেকনিক্যাল বিষয়ে দক্ষ করে তুলতে পারেন। এক্ষেত্রে অটো মেকানিক, কনস্ট্রাকশন কন্ট্রাক্টর, ইলেকট্টিশিয়ান, হেয়ার স্টাইলিস্টসহ এ ধরনের অনেক টেকনিক্যাল বিষয়ে নিজের দক্ষতা বাড়াতে পারেন, যা আপনার ক্যারিয়ার গঠনে সহায়ক ভূমিকা রাখতে পারে।

স্বতন্ত্র অবস্থান : চাকরির বাজারে নিজেকে স্বতন্ত্রভাবে উপস্থাপন খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। আপনার ভ্যালু, দক্ষতা, অভিজ্ঞতা এবং ট্যালেন্ট- সবকিছুর সঙ্গে আপনার সামগ্রিক চেষ্টা যোগ হলে আপনি আপনার স্বাতন্ত্র্যতা তৈরি করতে পারবেন।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

এই পাতার আরো খবর
up-arrow