Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২২:২৯ অনলাইন ভার্সন
ফের ‘বিরোধপূর্ণ’ অবস্থানে চট্টগ্রাম কলেজ ছাত্রলীগ
অস্ত্র উদ্ধার, এখনও পলাতক সেই আসামি
সাইদুল ইসলাম, চট্টগ্রাম
ফের ‘বিরোধপূর্ণ’ অবস্থানে চট্টগ্রাম কলেজ ছাত্রলীগ
চট্টগ্রাম কলেজে শিক্ষার্থীদের আইডিকার্ড ছাড়া প্রবেশ করতে দিচ্ছে না পুলিশ

চট্টগ্রাম কলেজ ছাত্রলীগের কমিটি নিয়ে এখনও বিরোধপূর্ণ অবস্থানে রয়েছে দুইগ্রুপ। উভয়ের মধ্যে উত্তেজনার ফলে চট্টগ্রাম কলেজ রোড দিয়ে চলাচলরত সাধারণ মানুষ ও শিক্ষার্থীরা প্রতিনিয়ত আতঙ্কিত অবস্থার মধ্যে রয়েছে। যে কোন সময় বড় ধরনের আশঙ্কাও করছেন আশ-পাশের মানুষ। 

শনিবারও চট্টগ্রাম কলেজে ছাত্রলীগের দুই পক্ষের মধ্যে ফের উত্তেজনা দেখা দেয়। এর মধ্যে পদবঞ্চিতদের সঙ্গে অপর দুই গ্রুপের বাকবিতণ্ডা শুরু হয়। এক পর্যায়ে দুই গ্রুপই মারমুখী অবস্থান নেয়। তবে কোন ধরণের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। ‘দুই গ্রুপ ক্যাম্পাসে অবস্থান করলে উত্তেজনা দেখা দেয়। এসময় তাদেরকে সরিয়ে দিলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে বলে জানান চকবাজার থানার উপ পরিদর্শক মো. কামাল। 

তিনি বলেন, কলেজ এলাকায় মোতায়েন করা হয়েছে অতিরিক্ত পুলিশ। বাড়ানো হয়েছে নজরদারিও।

তাছাড়া অনেকেই মন্তব্য করেন, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতাদের চট্টগ্রাম অবস্থানকালে নজরে আনতে এসব উত্তেজনাপূর্ণ অবস্থানে ছিল। এতে কমিটি নিয়ে কোন ধরণের আলোচনা বা দৃষ্টি দিলে কমিটি স্থগিত বা নতুন কমিটি ঘোষণার নির্দেশনার সম্ভাবনাও থাকতে পারে।

পুলিশ ও দলীয় সূত্রে জানা গেছে, চট্টগ্রাম কলেজে সদ্য ঘোষিত ছাত্রলীগের কমিটি বাতিলের দাবিতে অস্ত্রের মহড়া দেওয়ার ঘটনায় এক অস্ত্রধারীকে গ্রেফতারের পর এবার তার অস্ত্রটিও উদ্ধার করেছে পুলিশ। গত শুক্রবার ভোরে নগরের কোতোয়ালী থানার সিআরবি এলাকা থেকে দেশীয় তৈরি একটি বন্দুক ও দুইটি কার্তুজ উদ্ধার করে নগর গোয়েন্দা পুলিশ। এটি গত বুধবার দুপুরে চট্টগ্রাম কলেজের সামনে মহড়ায় ছাত্রলীগের চট্টগ্রাম মহানগর সহ সম্পাদক সাব্বির সাদিক ব্যবহার করেছে বলে দাবি তাদের। 

এর আগে গত বৃহস্পতিবার রাতে সাব্বির সাদিককে গ্রেফতার করে নগর গোয়েন্দা পুলিশ। অস্ত্রের মহড়ায় অংশ নেওয়া আরেক যুবক মো. আবু মোরশেদকে এখনো গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। মিছিল থেকে সাদা শার্ট পরা রাইফেল উঁচিয়ে গুলি করা আরেক যুবকের নাম আবু মোরশেদ। তিনি যুবলীগের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত বলে জানা গেছে। তার বাসা নগরের বাকলিয়া থানার মাস্টারপুল এলাকায়। তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে জানায় পুলিশ।

চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের সহকারি কমিশনার নোবেল চাকমা বলেন, বুধবারে মিছিলে অস্ত্র প্রদর্শনের ঘটনায় তিন যুবককে শনাক্ত করা হয়েছে। এরমধ্যে মো. ইমরান নামে এক যুবককে বুধবার রাতে গ্রেফতার করেছে সদরঘাট থানা পুলিশ। সাব্বির সাদিক নামে আরেকজনকে গ্রেফতার করেছে নগর গোয়েন্দা পুলিশ। বাকি একজনকে গ্রেফতারের চেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ। 

গত ১৭ সেপ্টেম্বর রাতে প্রয়াত নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর অনুসারী হিসেবে পরিচিত মাহমুদুল করিমকে সভাপতি ও প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসির অনুসারী সুভাষ মল্লিক সবুজকে সাধারণ সম্পাদক করে ২৫ সদস্যের কমিটির অনুমোদন দেয় নগর ছাত্রলীগ। টাকার বিনিময়ে এ কমিটিতে ছাত্রদল ও ছাত্রশিবিরের কর্মীদের পদ দেওয়া হয়েছে দাবি করে কমিটি প্রত্যাখান করে সিটি মেয়র ও নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীনের অনুসারীরা। কমিটি গঠনের পরদিন মঙ্গলবার সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করে পদবঞ্চিত কর্মীরা। বুধবার তাদের মিছিল থেকে ফাঁকা গুলি ছোড়ার ঘটনা ঘটে।

বিডি-প্রতিদিন/ ই-জাহান

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow