Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১২:৩৩ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১৯:৪৩
গণমাধ্যমকে ওবায়দুল কাদের
'ছবি না ছাপিয়ে জনপ্রিয়তা ঢেকে রাখা যাবে না'
রফিকুল ইসলাম রনি, পথসভা বহর থেকে
'ছবি না ছাপিয়ে জনপ্রিয়তা ঢেকে রাখা যাবে না'

সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, পত্রিকায় ছবি না ছাপিয়ে আওয়ামী লীগের জনপ্রিয়তা ঢেকে রাখা যাবে না। আওয়ামী লীগের জনপ্রিয়তা ঘরে ঘরে। আওয়ামী লীগ যেখানেই জনসভা করেছে লক্ষ লক্ষ লোক অংশ নিয়েছে। এটা গণমাধ্যম না দেখলেও জনগণ দেখেছে, দেশবাসী দেখেছে।

ঢাকা থেকে তিন দিনব্যাপী সড়ক যাত্রার অংশ হিসেবে আজ সকালে চট্টগ্রামে কর্ণফুলীতে এক পথসভায় অংশ নিয়ে ওবায়দুল কাদের এসব কথা বলেন।

গণমাধ্যমের সমালোচনা করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আরও বলেন, এভাবে বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতা হয় না। সত্য ঢাকা দিয়ে রাখা যায় না। আমিও গণমাধ্যমের লোক ছিলাম। সাংবাদিকদের আরও দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করতে হয়। 

জাতীয় ঐক্য জোটের সমালোচনা করে ওবায়দুল কাদের বলেন, নেতায় নেতায় জোট করলেন। আওয়ামী লীগের জনপ্রিয়তা সবচেয়ে বেশি। ৬৪ ভাগ জনপ্রিয়তা যে দলের তাদের বাদ দিয়ে জাতীয় ঐক্য হয় না।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সমালোচনা করেন তিনি বলেন, দেশবাসীর কাছে তিনি মিথ্যাচার করেছেন। জাতিসংঘ মহাসচিব বিএনপিকে আমন্ত্রণ জানায়নি। এটা জনগণের সঙ্গে প্রতারণা। তারা ভুয়া, প্রতারক। এ দল ক্ষমতায় আসলে দেশে গণতন্ত্র থাকবে না উন্নয়ন হবে না। দেশের জনগণ বিএনপি থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে। ধানের শীষ এখন পেটের বিষ।

নেতা-কর্মীদের ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ যখন ঐক্যবদ্ধ থাকে তখন বিজয় আসে। আমরা খুলনা-গাজীপুর-রাজশাহী-বরিশাল সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ঐক্যবদ্ধ ছিলাম বলে বিজয় এসেছে। সিলেটে সাংগঠনিক দুর্বলতা ছিল বলে জিততে পারিনি। ঐক্যবদ্ধ থাকলে আগামী সংসদ নির্বাচনেও ক্ষমতায় আসবো।

নেতা-কর্মীদের হুশিয়ারি উচ্চারণ করে কাদের বলেন, ঘরের ভেতর ঘর বানাবেন না। কোন্দল করবেন না। ত্যাগী নেতা-কর্মীদের মূল্যায়ন করবেন। কর্ণফুলীর মাটি শেখ হাসিনার ঘাঁটি। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকাকে ভাসাতে ভাসাতে বিজয়ের বন্দরে পৌঁছাবো ডিসেম্বরে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য আবদুল মতিন খসরু, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ,  সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীম, কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ব্যারিস্টার মুহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাসান মাহমুদ, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আবদুস সবুর, উপদফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, ভূমি প্রতিমন্ত্রী সাইফুদ্দিন চৌধুরী জাবেদসহ চট্টগ্রাম মহানগর ও জেলার নেতাকর্মীরা। 

বিডি প্রতিদিন/ফারজানা

আপনার মন্তব্য

up-arrow