Bangladesh Pratidin

ঢাকা, মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : ৭ জুন, ২০১৬ ১৬:০০
কুমিল্লায় স্বামী হত্যার দায়ে স্ত্রীর মৃত্যুদণ্ড
কুমিল্লা প্রতিনিধি
কুমিল্লায় স্বামী হত্যার দায়ে স্ত্রীর মৃত্যুদণ্ড

দশ বছর আগে কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলার মালিগাঁও গ্রামে স্বামী আব্দুস সালামকে হত্যার দায়ে স্ত্রীর ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

মঙ্গলবার কুমিল্লার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ৪র্থ আদালতের বিচারক নূরনাহার বেগম শিউলী এ আদেশ দেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি শাহিনা আক্তার (পলাতক) কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলার মালিগাঁও গ্রামের আবদুল আজিজ ভূঞার মেয়ে। মামলার বাদী নিহতের মা সুফিয়া বেগম।

মামলার বিবরণ ও আদালত সূত্র জানায়, ২০০৬ সনের ২৪ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যা সাড়ে ৮টার সময় বাদী সুফিয়া বেগমের ছেলে আব্দুস সালাম, ছেলের বউ শাহীনা আক্তার, নাতি মো. আব্দুল্লাহ-আল-মামুন (১৩) ও মো. মাকসুদুর রহমান মাসুমসহ (৬) রাতের খাওয়া শেষ করে ঘুমাতে যায়। ওই রাত ৩টার সময় সেহরী খাওয়ার জন্য ওঠে দেখেন বাদীর ছেলে আব্দুছ সালাম ঘরে নেই। পরে খোঁজাখুজি করে বাড়ির পূর্বে ডোবার পাশে আব্দুছ সালামের লাশ রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন। আব্দুস সালাম পাঁচ বছর পর ঘটনার ৪ দিন আগে সৌদি আরব থেকে দেশে আসেন।

হত্যার পর দিন ২৫ সেপ্টেম্বর নিহত আব্দুস সালামের মা বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে দাউদকান্দি থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরবর্তীতে পুলিশ তদন্তে প্রতিবেশী মাসুদ আলম (৩০) এবং স্ত্রী শাহীনা আক্তারের (২৯) এর নাম বেরিয়ে আসে। শাহীনা আক্তার ও মাসুদ আলমের পরকীয়া প্রেম ছিলো। তারা দু'জনে আব্দুস সালামকে খুন করে। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা দাউদকান্দি গৌরীপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এস. আই মোস্তাফিজুর রহমান আসামি শাহীনা আক্তারের (২৯) বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় ২০০৭ সনের ২৪ জানুয়ারি চার্জশিট দাখিল করেন। তবে এর আগেই আসামি মাসুদ আলম জেলখানায় আত্মহত্যা করেন। পরবর্তীতে মামলাটি বিচারে আসলে রাষ্ট্রপক্ষে এ মামলায় ১৭ জন স্বাক্ষীর স্বাক্ষ্য গ্রহণ শেষে আজ আসামি শাহীনা আক্তারকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ এবং ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেন আদালত। এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন- অতিরিক্ত পিপি অ্যাড. রেজ্জাকুল ইসলাম খসরু।

রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন- কুমিল্লার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ৪র্থ আদালতের অতিরিক্ত পিপি অ্যাড. রেজ্জাকুল ইসলাম খসরু এবং আসামি পক্ষে ছিলেন অ্যাড. মো. মফিজুল ইসলাম।

বিডি-প্রতিদিন/০৭ জুন, ২০১৬/মাহবুব

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow