Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ৩০ জুন, ২০১৬ ১১:২৯
আপডেট : ৩০ জুন, ২০১৬ ১২:১৯
ডিসিসি দক্ষিণের কানুনগো মানিক গ্রেফতার
অনলাইন ডেস্ক
ডিসিসি দক্ষিণের কানুনগো মানিক গ্রেফতার

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের কানুনগো মোহাম্মদ আলী মানিককে ৪২টি প্রকল্পে ৩০০ কোটি টাকার দুর্নীতির মামলায় গ্রেফতার করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। বৃহস্পতিবার সকালে মানিককে গ্রেফতার করে দুদক কর্মকর্তারা।

এর আগে ২০১৪ সালে দুর্নীতির মামলায় হাজিরার জন্য আলী আহম্মেদ নামের একজনকে মানিক সাজিয়ে আদালতে পাঠানোর ঘটনায় গ্রেফতার হয়েছিলেন তিনি। পরে জামিনে মুক্তি পান।

দুদক সূত্র জানায়, মোহাম্মদ আলী মানিক ২০০৫ সালে তৃতীয় শ্রেণির কর্মচারী হিসেবে ঢাকা সিটি করপোরেশন-ডিসিসিতে যোগ দেন। এরপরই সিটি করপোরেশনের দোকান বরাদ্দ, টেন্ডার বাণিজ্য থেকে শুরু করে নানা অনিয়ম-দুর্নীতির সাথে জড়িয়ে পড়েন। চার বছর না পেরুতেই তিনি সিনিয়রদের ডিঙ্গিয়ে অতিরিক্ত অনেক দায়িত্ব পান। ২০১০ সালে কানুনগো পদে পদোন্নতি পান।

দুর্নীতির মাধ্যমে প্রায় ৩০০ কোটি টাকার সম্পত্তির মালিক হয়ে যান তিনি। তবে তিনি নিজের সব সম্পত্তি বিভিন্ন আত্মীয়-স্বজন, এলাকার লোক, গ্রামের গরিব লোকজনের নামে করেছেন।

দুদক সূত্র জানায়, বাবা মো. নুর নবী চৌধুরী ও মা হাসিনা চৌধুরীর নামে বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও বেশ কয়েকটি বাড়ি করেছেন মানিক। দুটি দামি গাড়ি আছে তার। নোয়াখালীর পুরানপুরে তিনি একটি আলিশান বাড়ি করেছেন, যার মূল্য কয়েক কোটি টাকা। জয়াগ বাজারে তার আরও কিছু সম্পত্তি রয়েছে। এছাড়া রাজধানীর শ্যামলীতে স্ত্রী শামীমা আক্তারের নামে পাঁচতলা বাড়ি কিনে দিয়েছেন তিনি।

বিএনপি নেতা সাদেক হোসেন খোকা ডিসিসির মেয়র থাকাকালে তার স্বাক্ষর জাল করে অবৈধভাবে মার্কেটে দোকান বরাদ্দ দেওয়া ও নথিপত্র গায়েব করার অভিযোগে বরখাস্ত হয়েছিলেন কানুনগো মানিক।

দুর্নীতির মাধ্যমে ৩০০ কোটি টাকার মালিক হয়েছেন এমন অভিযোগে ২০১৩ সালে মোহাম্মদ আলীর বিরুদ্ধে অনুসন্ধানে নামে দুদক। দীর্ঘ দুই বছর তদন্তের পর গত বছরের ১০ আগস্ট মোহাম্মদ আলীকে তলব করে দুদক।

দুদক সূত্র জানায়, সে সময় দুদকে আসা অভিযোগে বলা হয়, মোহাম্মদ আলী তার সকল সম্পত্তি বিভিন্ন আত্বীয় স্বজন এবং গ্রামের গরীব লোকজনের নামে করেছেন। তার বাবা-মায়ের নামে বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। পিতার নামে কিনেছেন বাড়ি-গাড়ি। জাতীয় রাজস্ব বোর্ডে যে আয়কর ফাইল রয়েছে তাও তার মায়ের নামে।

অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে গত ডিসেম্বরে মোহাম্মদ আলীর বিরুদ্ধে মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

বিডি-প্রতিদিন/এস আহমেদ

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow