Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ১ জুলাই, ২০১৬ ১৪:৪৭
আপডেট : ১ জুলাই, ২০১৬ ১৫:০০
ঈদের ছুটিতে চালু থাকবে ঢামেক হাসপাতালের ওটি
নিজস্ব প্রতিবেদক
ঈদের ছুটিতে চালু থাকবে ঢামেক হাসপাতালের ওটি

ঈদুল ফিতরের ছুটিতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের আটটি জরুরি অস্ত্রোপচার কক্ষ (ইমার্জেন্সি ওটি) ২৪ ঘণ্টা খোলা থাকবে।

খোলা থাকা ওটিগুলো হচ্ছে সিজারিয়ান ওটি ২টি, ক্যাজুয়ালটি সার্জারি ২টি, প্যাডিয়াট্রিক সার্জারি ১টি, নিউরোসার্জারি ১টি, আই (চক্ষু) ১টি ও ইএনটি(নাক, কান ও গলা বিভাগ) ১টি। হাসপাতালের নরমাল ওটি (সাধারণ অস্ত্রোপচার কক্ষ) বন্ধ থাকবে।

বর্তমানে ঢামেক হাসপাতালে মোট ৩৫টি ওটি রয়েছে। এর মধ্যে ৩১টিতে জেনারেল অ্যানেসথেসিয়া (জিএ) মেশিন ব্যবহার করে অস্ত্রোপচার করা হয়।

ঢামেক হাসপাতালের পরিচালক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল মিজানুর রহমান বলেন, ঈদের ছুটিতে জরুরিসহ সামগ্রিক চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

মিজানুর রহমান বলেন, ইতোমধ্যেই বিভিন্ন বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক, নার্স ও অন্যান্য কর্মকর্তা কর্মচারীদের সঙ্গে পৃথক বৈঠক করে কাজের দায়িত্ব বন্টণ করে দেওয়া হয়েছে। রুটিনের বাইরেও অধ্যাপকরা ঈদের দিনসহ অন্যান্য ছুটির দিনে হাসপাতাল পরিদর্শন করবেন।

তিনি জানান, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুসারে প্রতিদিন ২৪ ঘণ্টা জরুরি বিভাগ খোলা থাকবে। এছাড়া ঈদের দিন, শবে কদর এর পরদিন এবং দুই শুক্রবার ব্যতীত প্রতিদিন সীমিত পরিসরে বহির্বিভাগের চিকিৎসাসেবা চালু থাকবে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, শুধু ঢামেক হাসপাতাল নয় রাজধানীর সকল সরকারি ও স্বায়ত্ত্বশাসিত হাসপাতাল (বিএসএমএমইউ ও বারডেম) ঈদের ছুটিতে রোগীদের চিকিৎসা সেবা অব্যাহত রাখতে আগাম প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে।

ঈদের ছুটির সময় সরকারি হাসপাতালে যথাযথ চিকিৎসা অব্যাহত আছে কি না তা তদারকি করতে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও স্বাস্থ্য অধিদফতরে দুটি পৃথক কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে।

সম্প্রতি স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এক সভায় দেশের সকল সরকারি হাসপাতালে সরকারি ছুটির দিন রোগীদের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার জন্য দেশের বিভিন্ন স্থানে প্রয়োজনীয় ওষুধপত্র, চিকিৎসক, নার্স এবং সুসজ্জিত অ্যাম্বুলেন্সসহ মেডিকেল চিকিৎসাসেবা প্রদানের সরঞ্জামাদি মজুদ এবং মহাসড়ক, রেল ও নৌ-পথে আকস্মিক বড় দুর্ঘটনা মোকাবেলায় জরুরি চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করাসহ প্রয়োজনীয় সংখ্যক চিকিৎসক, ওষুধ ও সরঞ্জামাদি প্রস্তুত রাখার জন্য সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন।

বিডি-প্রতিদিন/এস আহমেদ

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow