Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : ১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৮:১০
হলের দাবিতে জবির শিক্ষার্থীদের প্রেসক্লাবে সমাবেশ
অনলাইন ডেস্ক
হলের দাবিতে জবির শিক্ষার্থীদের প্রেসক্লাবে সমাবেশ

পরিত্যক্ত কারাগারের জমি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়কে হস্তান্তর করে সেখানে শিক্ষার্থীদের আবাসিক হল নির্মাণের দাবিতে জাতীয় প্রেসক্লাবে ছাত্র সমাবেশ করেছেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা। আজ সকাল ১১টার দিকে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এই সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। অন্যদিকে একই দাবিতে ছাত্রলীগ ক্যাম্পাসে ছাত্র ধর্মঘট পালন করেছেন। কারাগারের জমিতে হলের দাবিতে আগামীকাল পুরান ঢাকায় দিনব্যাপী গণসংযোগ করবে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা ।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বুধবার সকাল ৮টা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করে জাতীয়  প্রেস ক্লাবের সামনে জমায়েত হতে থাকেন। এক পর্যায়ে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি বাড়তে থাকলে সকাল ১১টার দিকে এই ছাত্র সমাবেশ শুরু করেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা। এসময় শিক্ষার্থীরা হলের দাবিতে বিভিন্ন  শ্লোগান দিলে পুরো প্রেসক্লাব এলাকা মুখরিত হয়ে উঠে। দুপুর ১টা পর্যন্ত তারা সেখানে অবস্থান নেন। সাধারণ শিক্ষার্থীদের এই আবাসিক হলের দাবির সাথে সংহতি প্রকাশ করেছেন বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ও  বুদ্ধিজীবীগণ।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, একটা পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে আবাসিক সুবিধা থাকবেনা তা কখনো মেনে নেওয়া যায় না। তাছাড়া শিক্ষার্থীদের ন্যায্য  দাবিতে শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে পুলিশি হামলা খুবই ন্যাক্কারজনক ঘটনা। একজন শিক্ষার্থী কেন ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করে রাস্তায় আন্দোলন করবে সরকার কি তা দেখেন না? এসময় শিক্ষার্থীদের দাবি মেনে নিয়ে দ্রুত সমাধান করার জন্য সরকারের প্রতি আহবান জানান সমাবেশে বক্তারা ।

শিক্ষার্থীরা বলেন, কারাগারের জমির জন্য আমরা টানা একমাস আন্দোলন করে আসছি। অথচ এখনো পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন ও সরকারের কাছ থেকে কোন সুস্পষ্ট আশ্বাস পায়নি। স্থানীয় বাসিন্দারা কারাগারের জায়গায় শপিং মল নির্মাণের দাবি করছে। আমরা মনে করি আবাসিক সংকট নিরসন শপিং মলের চেয়ে অধিকতর গুরুত্বপূর্ণ। তাই আমরা এই জমিতে এলাকাবাসী ও ছাত্র সমাজের মধ্যে মিলন মেলা হিসাবে গড়ে তুলতে সেখানে হল নির্মাণের দাবি জানাচ্ছি।

এছাড়া ক্যাম্পাসে শাখা ছাত্রলীগ হলের দাবিতে ধর্মঘট অব্যাহত রেখেছে। ধর্মঘট চলাকালীন দুটি বিভাগ যথা ম্যানেজমেন্ট ও জিওগ্রাফি বিভাগের শিক্ষকরা জোর করে ক্লাস নিয়েছেন বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি এফ এম শরীফুল ইসলাম বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, আমরা হলের দাবিতে ক্যাম্পাসে ধর্মঘট অব্যাহত রেখেছি। যেসব বিভাগের শিক্ষকরা ক্লাস নিয়েছেন তাদের প্রতি আহ্বান করবো আপনারা আমাদের যৌক্তিক আন্দোলনে সমর্থন করুন।  

কর্মসূচি: হলের দাবিতে আগামীকাল শুক্রবার সকাল ১০টা থেকে দিনব্যাপী পুরান ঢাকায় গণসংযোগ করবেন আন্দোলনরত সাধারণ শিক্ষার্থীরা। এছাড়া একই দাবিতে আগামী শনিবার ঢাকা রির্পোটার ইউনিটি ৩য় তলায় স্বাধীনতা হলে বিকাল ৪টায় দেশ বরেণ্য বুদ্ধিজীবী, লেখক ও সাংবাদিকদের সাথে গোলটেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন এসব শিক্ষার্থীরা। বুধবার আন্দোলন শেষে দুপুর ১টার দিকে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এসব কর্মসূচি ঘোষণা দেওয়া হয়।

 

বিডি-প্রতিদিন/ ০১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬/ আফরোজ

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow