Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : ৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৬:৩২
স্কুল থেকে চুরি হওয়া ১৬ ল্যাপটপ উদ্ধার, গ্রেফতার ১০
নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী
স্কুল থেকে চুরি হওয়া ১৬ ল্যাপটপ উদ্ধার, গ্রেফতার ১০

রাজশাহীর তানোর উপজেলার নারায়নপুর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে চুরি হওয়া ১৬টি ল্যাপটপ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার রাতভর তানোর ও চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ল্যাপটপগুলো উদ্ধার করা হয়। এ সময় স্কুল-কলেজ পড়ুয়া ১০ ছাত্রকেও গ্রেফতার করা হয়েছে।

গ্রেফতারকৃতরা হলো, নারায়নপুর উচ্চ বিদ্যালয়েরই দশম শ্রেণীর ছাত্র ফিরোজ কবির সাগর (১৫), তানোর কলেজের ছাত্র রায়হান কবির (২০) ও মিনহাজুল আবেদীন পলাশ (২১), চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্র আতিকুর রহমান (১৬), একই উপজেলার বড়াই কলেজের ছাত্র মুমিন (২০) ও রাজু আলী (২১), শিবগঞ্জ ডিগ্রি কলেজের ছাত্র রুমন (২৩) ও ইব্রাহিম (২১), চাঁপাইনবাবগঞ্জ সরকারি কলেজের ছাত্র মোশারফ হোসেন (২১) এবং রাজশাহী নিউ গভ. ডিগ্রি কলেজের ছাত্র মোজাম্মেল হক শুভ (১৭)।

তানোর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মির্জা আবদুস সালাম জানান, উপজেলার বিলশহর গ্রামের বাসিন্দা ও নারায়নপুর দ্বিতীয় উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর ছাত্র ফিরোজ কবির সাগর নিজের স্কুলের শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব থেকে ল্যাপটপ চুরির পরিকল্পনা করে। এ জন্য সে সাবানের ওপর স্কুল ল্যাবের তালার চাবির একটি ছাপ নেয়। এরপর সে তার গ্রামের ইয়াসিন আলী নামে এক ছাত্রকে বিষয়টি জানায়। ইয়াসিন রাজশাহীর মদিনাতুল উলুম কামিল মাদ্রাসায় পড়াশোনা করে। পরে ইয়াসিন, সাগর, রায়হান ও পলাশ ওই চাবির ছাপ দেখিয়ে তানোর উপজেলা সদরে ময়না নামে এক তালা-চাবির কারিগরকে দিয়ে নকল একটি চাবি তৈরি করে।

তিনি জানান, পরিকল্পনা মোতাবেক ইয়াসিন, রায়হান ও পলাশ গত ২৬ জুলাই গভীর রাতে ওই স্কুলের কম্পিউটার ল্যাবের তালা খুলে ১৬টি ল্যাপটপ চুরি করে। ঘটনার সময় স্কুলের নৈশপ্রহরী অন্য একটি শ্রেণীকক্ষে ঘুমিয়ে ছিলেন। পরদিন সকালে তারা ল্যাপটপগুলো শিবগঞ্জ উপজেলার বড়বাড়ী মহাজনপাড়া গ্রামের আবদুস সালামের ছেলে আতিকুর রহমান ওরফে শাওনের কাছে বিক্রি করে দেয়। এরপর শাওন ল্যাপটপগুলো ইব্রাহিম, রাজু, শুভ, মমিন ও রুমনের কাছে বিক্রি করে।
    
ওসি আরও জানান, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তানোর থেকে সাগর, রায়হান ও পলাশকে গ্রেফতার করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। এক পর্যায়ে তারা ল্যাপটপ চুরির পরিকল্পনা থেকে বিক্রি পর্যন্ত সবকিছুই পুলিশের কাছে স্বীকার করে। এরপর তাদের সঙ্গে নিয়েই অভিযানে নামে পুলিশ। রাতভর অভিযান চালিয়ে ল্যাপটপগুলো উদ্ধার করা হয়। আর শিবগঞ্জ থেকে গ্রেফতার করা হয় আরও সাত ছাত্রকে।

গত ১২ জুন ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দেশের শতাধিক স্কুলে শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাবের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরপর গত ২৬ জুলাই রাতে তানোরের নারায়নপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের এই ল্যাব থেকে এসব ল্যাপটপ চুরি হয়।

এ ঘটনায় থানায় মামলা হলে স্কুলের নৈশপ্রহরী জাহাঙ্গীর আলম ও পিয়ন রফিকুল ইসলামকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে তাদের তিনদিন করে রিমান্ডেও নেওয়া হয়। কিন্তু তারা পুলিশকে কোনো তথ্য দিতে পারেনি। পরবর্তীতে পুলিশের অনুসন্ধানে ঘটনার এক মাস ১৩ দিন পর ল্যাপটপগুলো উদ্ধার করা হলো।

বিডি-প্রতিদিন/০৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬/এনায়েত করিম

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow