Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ অক্টোবর, ২০১৭

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ অক্টোবর, ২০১৭
প্রকাশ : ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৮:২৪ অনলাইন ভার্সন
আপডেট :
কমিউনিটি পুলিশিং মহাসমাবেশে গণপূর্তমন্ত্রী
'বিএনপি সন্ত্রাস-নির্ভর রাজনৈতিক দল'
নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম
'বিএনপি সন্ত্রাস-নির্ভর রাজনৈতিক দল'

গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, বিএনপি একটা সন্ত্রাস-নির্ভর রাজনৈতিক দল। তারা সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে ক্ষমতায় যেতে চায়।

বারবার চেয়েছে সন্ত্রাসের মাধ্যমে দেশের উন্নয়নকে নস্যাৎ করতে। কিন্তু জনগণ সচেতন থাকার কারণে তাদের উদ্দেশ্য সফল হয়নি।

বৃহস্পতিবার দুপুরে চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলার জোরারগঞ্জ হাইস্কুল মাঠে চট্টগ্রাম জেলা কমিউনিটি পুলিশিং এর মহাসমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ সুপার নুরে আলম মিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মহসমাবেশে প্রধান বক্তা ছিলেন পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) একেএম শহীদুল হক। বিশেষ অতিথি ছিলেন পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডেপুটি ইন্সপেক্টর মো. শফিকুল ইসলাম, সিএমপি কমিশনার ইকবাল বাহার, চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মো. সামসুল আরেফিন প্রমুখ। অনুষ্ঠানে কমিউনিটি পুলিশের প্রায় দশ হাজার সদস্য উপস্থিত ছিলেন।

গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী বলেন, বিএনপি-জামায়াত চক্র বিগত সময়ে সীতাকুণ্ড ও মিরসরাইয়ে হরতাল-অবরোধের নামে শত শত গাড়ি পুড়িয়েছে, পেট্রোল বোমা মেরে সাধারণ মানুষকে হত্যা করেছে, তাদের কাছ থেকে রেহাই পায়নি গরুর গাড়িও।

প্রধান অতিথি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণার আলোকে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ দমনে পুলিশ উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করছে। আর কোন বাহিনীর প্রয়োজন হচ্ছে না।

জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্সের ক্ষেত্রে পুলিশের একার ভূমিকা প্রশংসনীয়।

মিরসরাইয়ের সম্ভাবনা প্রসঙ্গে গৃহায়ণ মন্ত্রী বলেন, এই উপজেলা হলো ল্যান্ড অব ব্যাংক। এখানে দেশের সর্ববৃহ‍ৎ স্পেশাল ইকোনোমিক জোন হচ্ছে। যেখানে কাজ করবে ৫ লক্ষাধিক মানুষ।  

প্রধান বক্তা পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) একেএম শহীদুল হক বলেন, বিএনপির দেশবিরোধী ষড়যন্ত্র থেমে নেই। ইসলামের কথা বলে জামায়াত বার বার দেশ ধ্বংসের পাঁয়তারা করছে। ২০১৩ সালে এ সন্ত্রাসী দল দেশের সাধারণ মানুষকে পুড়িয়ে মেরেছে, ১৬ জন পুলিশকে হত্যা করেছে। তাই আমরা মনে করি বিএনপি ও তাদের দোসরদের এই বাংলার মাটিতে রাজনীতি করার কোন অধিকার নেই।

তিনি বলেন, পুলিশ-জনতা একসঙ্গে কাজ না করলে সমাজের সমস্যা দূর হবে না। সমাজে মানুষের শান্তির জন্য প্রয়োজন নাগরিক এবং পুলিশের পারস্পরিক আস্থা। এ ক্ষেত্রে সেতুবন্ধন হিসেবে কাজ করবে কমিউনিটি পুলিশ। জনগণকে পুলিশের ওপর ভরসা রাখতে হবে। পুলিশ তার যথাযথ ভূমিকা রাখলে সমাজে শৃঙ্খলা বজায় থাকবে।

বিডি প্রতিদিন/ সালাহ উদ্দীন

আপনার মন্তব্য

up-arrow