Bangladesh Pratidin

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৬:২৭ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৬:৩০
'ভিডিও কনফারেন্সিংয়ে স্পর্শকাতর বন্দীদের বিচার চালু হচ্ছে'
গাজীপুর প্রতিনিধি :
'ভিডিও কনফারেন্সিংয়ে স্পর্শকাতর বন্দীদের বিচার চালু হচ্ছে'
ফাইল ছবি

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, আমাদের সরকার কারা বিভাগের উন্নয়নে সর্বাত্মক সহযোগিতা অব্যাহত রেখেছে। যার ফলে আজ কারা বিভাগের অনেক আধুনিকায়ন হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সদিচ্ছায় আজ কারাবন্দিদের মোবাইল/টেলিফোনে পরিবারের সঙ্গে কথা বলার দ্বার উন্মোচিত হচ্ছে। এ ছাড়াও প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় স্পর্শকাতর বন্দিদের কারাগার থেকে আদালতে ভিডিও কনফারেন্সিং পদ্ধতিতে বিচার কার্যক্রম চালু করা হচ্ছে। কারা প্রশাসন র‌্যাবের সহযোগিতায় বন্দিদের ডাটাবেজ তৈরি করছে। যাতে আমাদের আইনশৃঙ্খলা ব্যবস্থা আরও একধাপ এগিয়ে যাবে।

মন্ত্রী আরও বলেন, কারা বিভাগের জন্য ৩ হাজার ১০৭ জন জনবলের সরকারী আদেশ জারি করা হয়েছে এবং আশা করি অতি শিগগিরই এর নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হবে। তাছাড়া সরকারি অন্যান্য পোশাকধারী সংস্থার সঙ্গে মর্যাদা ও পদোন্নতির সামঞ্জস্য খতিয়ে দেখে গ্রেড উন্নতি করণের বিষয়টি সরকারের সক্রিয় বিবেচনাধীন রয়েছে বলে তিনি জানান।

রবিবার দুপুরে কারা সাপ্তাহ-২০১৭ উদযাপন উপলক্ষে গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার প্রাঙ্গনে আয়োজিত কুচকাওয়াজ পরিদর্শন ও সালাম গ্রহণ শেষে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এক সময় কারাগার শুধু সাজা কার্যকরের স্থান হিসেবে পরিগণিত হতো। সময়ের পরিক্রমায় ‘বাংলাদেশ জেল’ তার পূর্বতন ধ্যান ধারণা থেকে বেরিয়ে নতুন পথের দিবে ধাবিত হচ্ছে। আজ ‘বাংলাদেশ জেল’ এর সদস্যরা কারাবন্দিদের সংশোধন করে সমাজের পুনর্বাসন করার চেতনা ধারণ করে কারা সাপ্তাহ উদযাপন করছে। যা শুধু কারা বিভাগের নয় আমাদের সরকারের সফলতার একটি উজ্জল দৃষ্টান্ত।

এর আগে সকালে প্রধান অতিথি কারাগার প্রাঙ্গণে উপস্থিত হলে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সেবা সুরক্ষা বিভাগের সচিব ফরিদ উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী ও কারা মহাপরিদর্শক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সৈয়দ ইফতেখার উদ্দীন তাঁকে অভ্যর্থনা জানান। এ সময় র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ ও অতিরিক্ত কারা মহাপরিদর্শক কর্নেল মো. ইকবাল হাসান উপস্থিত ছিলেন। মন্ত্রী একটি খোলা জিপে চড়ে প্যারেড পরিদর্শন ও বেলুন এবং পায়রা উড়িয়ে কারা সপ্তাহের উদ্বোধন করেন। অনুষ্ঠানে মন্ত্রী সেরা জেল ও বিভাগকে কৃতিত্বপূর্ণ অবদান রাখার জন্য ক্রেস্ট প্রদান করেন। এ সময় তিনি কৃতিত্বপূর্ণ অবদান রাখার জন্য ৮ জনকে পুরস্কার প্রদান করেন।

পরে তিনি কারা রক্ষীদের মনোমুগ্ধকর শারীরিক কসরত প্রদর্শন উপভোগ, কেন্দ্রীয় প্রদর্শনী ও বিক্রয় কেন্দ্র পরিদর্শন, রক্তদান কর্মসূচীর উদ্বোধন, প্রিজন পপুলেশন স্ট্যাটিসটিকস ২০১৭ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন এবং বিশেষ দরবারে অংশগ্রহণ করেন।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে সংসদ সদস্য জাহিদ আহসান রাসেল, গাজীপুরের জেলা প্রশাসক এস এম আলম, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ, গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের ভারপ্রাপ্ত মেয়র আসাদুর রহমান কিরণসহ কারা বিভাগের পদস্থ কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, চলতি অর্থ বছরে কারা কর্মচারিদের প্রশিক্ষণের মানোন্নয়নের জন্য ‘কারা প্রশিক্ষণ একাডেমি’ রাজশাহী, কারা নিরাপত্তা আরো শক্তিশালী করতে ‘কারা নিরাপত্তা আধুনিকায়ন প্রকল্প’, মহিলা কারা রক্ষিদের আবাসন সমস্যা নিরসনকল্পে ‘মহিলা কারা রক্ষী আবাসন প্রকল্প’ এবং ‘ময়মনসিংহ কেন্দ্রীয় কারাগার সম্প্রসারণ ও আধুনিকায়ন প্রকল্প’ সরকার একনেকে অনুমোদন দিয়েছে।

পরে মন্ত্রী কাশিমপুর কারা ক্যাম্পাসে আয়োজিত কারা মেলা পরিদর্শণ করেন।


বিডি-প্রতিদিন/২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭/মাহবুব

 

 

আপনার মন্তব্য

up-arrow