Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বুধবার, ১৮ অক্টোবর, ২০১৭

ঢাকা, বুধবার, ১৮ অক্টোবর, ২০১৭
প্রকাশ : ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২০:২২ অনলাইন ভার্সন
আপডেট :
টঙ্গীতে টাম্পাকো ট্র্যাজেডি
লাশের অপেক্ষায় নিহত শ্রমিকের স্বজনরা
টঙ্গী প্রতিনিধি:
লাশের অপেক্ষায় নিহত শ্রমিকের স্বজনরা
ফাইল ছবি

গাজীপুরের টঙ্গী বিসিক শিল্পনগরী এলাকায় টাম্পাকো ফয়েলস প্যাকেজিং কারখানায় ঘটে যাওয়া ভয়াবহ অগ্নি দূর্ঘটনায় নিখোঁজ পাঁচ শ্রমিকের স্বজনরা এখনো লাশের অপেক্ষায় দিন কাটছে। কবে স্বজনের লাশ ফিরে পাবে সেই প্রতীক্ষায় চোখের পানি ঝড়ছে।

ইতোমধ্যে নিখোঁজ ৯ শ্রমিকের মধ্যে চার শ্রমিকের লাশ নিহতের স্বজনের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। বাকি পাঁচ শ্রমিকের পুনরায় ডিএনএ পরীক্ষার জন্য লাশ পড়ে আছে ঢামেক মর্গে। এরা হলো আজিমুদ্দিন পিতা মালেক মোল্লা, জহিরুল ইসলাম পিতা আবুল হোসেন, আনিসুর রহমান পিতা সুলতান গাজী, মাসুম আহম্মেদ পিতা তোফাজ্জল হোসেন ও জয়নুল ইসলামের পিতা জমিজ উদ্দিন। পাঁচ মাস অতিবাহিত হলেও এখনো পাঁচ শ্রমিকের লাশ না পেয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন স্বজনরা।

এদিকে জহিরুল ইসলামের স্বজন আলাউদ্দিন মিয়া বলেন পাঁচ মাস অতিবাহিত হলেও আমরা আমাদের লাশ এখনো পাইনি। কবে আমাদের লাশ ফেরত পাব আল্লাই জানে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই সুমন ভক্ত বলেন, ডিএনএ ল্যাবে প্রেরিত নিহত শ্রমিকের নমুনা পরীক্ষার জন্য অনুপোযোগী ছিল, যার জন্য পাঁচ শ্রমিককে সনাক্ত করা সম্ভব হয়নি। তাই পুনরায় ডিএনএ পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহে গাজীপুর জেলা চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের অনুমতি নিয়ে ফের ডিএনএ ল্যাবে নমুনা পাঠানো হবে।

উল্লেখ্য,গত ১০সেপ্টেম্বর শনিবার ভোরে গাজীপুরের টঙ্গী বিসিক এলাকার ট্যাম্পাকো ফয়েলস লিমিটেড কারখানায় ভয়াবহ অগ্নি-দুর্ঘটনা ঘটে।

এতে নিখোঁজ ৯ শ্রমিকের পরিচয় না মেলার কারনে ডিএনএ পরীক্ষার জন্য ঢামেক মর্গে পাঠানো হয়। ইতোমধ্যে ৪ শ্রমিকের লাশ সনাক্ত করে নিহতের স্বজনের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

বিডি প্রতিদিন/ সালাহ উদ্দীন

আপনার মন্তব্য

up-arrow