Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ১৯ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, শনিবার, ১৯ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : ৫ মার্চ, ২০১৭ ১৪:৪৩ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ৫ মার্চ, ২০১৭ ১৪:৪৬
কুমিল্লায় মেয়র পদে ৪ জনের মনোনয়নপত্র বৈধ
কুমিল্লা প্রতিনিধি:
কুমিল্লায় মেয়র পদে ৪ জনের মনোনয়নপত্র বৈধ

আজ থেকে কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই শুরু হয়েছে। এতে আওয়ামী লীগ-বিএনপিসহ ৪ জন প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে।

বাতিল করা হয়েছে স্বতন্ত্র প্রার্থীর মনোনয়নপত্র। আগামীকাল সোমবারও যাচাই-বাছাই হবে।  

মনোনয়নপত্র বৈধ হওয়া ৪ জন প্রার্থী হচ্ছেন, আওয়ামী লীগের আঞ্জুম সুলতানা সীমা, বিএনপির মনিরুল হক সাক্কু, জেএসডির শিরিন আক্তার ও পিডিপির সোয়েবুর রহমান। জমা দেয়া ভোটার তালিকা ঠিক না থাকায় বাতিল করা হয় স্বতন্ত্র প্রার্থী অবসরপ্রাপ্ত মেজর মামুনুর রশিদের মনোনয়নপত্র।

মনোনয়ন যাচাই-বাছাইয়ে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী মনিরুল হক সাক্কুর বিরুদ্ধে বিভিন্ন আদালতে ১০টি মামলা রয়েছে বলে অভিযোগ জমা দেয়া হয়। তবে যাচাই বাছাই হয়ে যাওয়ায় রির্টানিং কর্মকর্তা তা আমলে নেননি।  
 
মনোনয়পত্র বৈধ ঘোষণার পরে সবার দোয়া চেয়েছেন আওয়ামী লীগের আঞ্জুম সুলতানা সীমা। তিনি বলেন, আমি নির্বাচিত হয়ে নগরবাসীর কল্যাণে কাজ করতে চাই। সাক্কুর বিরুদ্ধে ১০ মামলার ব্যাপারে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সীমা বলেন, এখানে নির্বাচন কমিশন এবং আদালত আছে, তাদের আইন অনুসারে যা করার দরকার তারা তাই করবে। আমি এ বিষয়ে কিছু বলতে চাই না।  

বিএনপির প্রার্থী সদ্য বিদায়ী  সিটি মেয়র মনিরুল হক সাক্কু বলেন, অতীত কাজ মূল্যায়ন করে নগরবাসী আমাকে মনোনীত করবেন বলে আমার বিশ্বাস। ১০টি মামলার বিষয়ে তিনি বলেন, আমি আমার হলফনামায় ১০টি মামলার কথা উল্লেখ করেছি। তার মধ্যে ৮টি মামলা নিষ্পত্তি হয়েছে, ২টি মামলা চলমান। এই মামলাগুলো বহুদিন আগে এরশাদ বিরোধী আন্দোলনের সময়।

রির্টানিং কর্মকর্তা রকিব উদ্দিন মন্ডল বলেন, আওয়ামী লীগের আঞ্জুম সুলতানা সীমা, বিএনপির মনিরুল হক সাক্কু, জেএসডির শিরিন আক্তার ও পিডিপির সোয়েবুর রহমানের মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে। ভোটার তালিকা ঠিক না থাকায় বাতিল করা হয় স্বতন্ত্র প্রার্থী অবসরপ্রাপ্ত মেজর মামুনুর রশিদের মনোনয়নপত্র। তবে তার আপিল করার সুযোগ রয়েছে।

মনোনয়নপত্র বাতিল হওয়া মেয়র প্রার্থী মামুনুর রশিদ বলেন, একটি ঠুনকো বিষয় নিয়ে আমার মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে। এবিষয়ে আমি পুনরায় আপিল করবো।

উল্লেখ্য, গত ২ মার্চ মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ দিনে মেয়র পদে ৫ জন, সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৪২ জন এবং সাধারণ কাউন্সিলর পদে ১৪৫ জন মনোনয়নপত্র জমা দেন। আগামী ১৪মার্চ মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার দিন। ১৫ মার্চ প্রতীক বরাদ্দ এবং ৩০ মার্চ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।  


বিডি প্রতিদিন/৫ মার্চ ২০১৭/হিমেল

আপনার মন্তব্য

up-arrow