Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ২৫ নভেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, শনিবার, ২৫ নভেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : ৮ মার্চ, ২০১৭ ১৮:৩৫ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ৮ মার্চ, ২০১৭ ১৮:৪৪
চট্টগ্রামে জঙ্গি আস্তানার সন্ধান, বিপুল গোলাবারুদ উদ্ধার
নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম:
চট্টগ্রামে জঙ্গি আস্তানার সন্ধান, বিপুল গোলাবারুদ উদ্ধার

কুমিল্লা থেকে গ্রেফতার হওয়া দু জঙ্গি হাসান এবং জসিমের তথ্যের ভিত্তিতে চট্টগ্রামের মিরসরাই থেকে একটি জঙ্গি আস্তানা সন্ধান মিলেছে। ওই আস্তানা থেকে ২৯ টি গ্রেনেড, ১১ কেজি বোমা তৈরির সরঞ্জাম, ৭ টি কালো পাঞ্জাবি, আরবিতে কালো কাপড়ের ওপর লেখা একটি ব্যানার, ছোট-বড় ৯ টি চাপাতি, ২৮০ প্যাকেট কার্বন স্টীলবল, ৪০ টি পাওয়ার জেল উদ্ধার করেছে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা।

মঙ্গলবার রাত থেকে বুধবার দুপুর পর্যন্ত মিরসরাইয়ের গোপনিয়া কলেজ রোডের রিদওয়ান মঞ্জিল নামে একটি দ্বিতলা ভবনে এ অভিযান চালানো হয়।

অভিযান শেষে চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ সুপার নুর এ আলম মিনা বলেন, ‘রিদওয়ান ভবনের নিচ তলায় ভাড়া বাসা নিয়ে জঙ্গি আস্তানা গড়ে তুলে। এ আস্তানার সাথে জড়িত রয়েছে এমন আট জনের নাম পাওয়া গেছে। তাদের গ্রেফতারের জন্য প্রচেষ্টা চালানো হচ্ছে। ’ এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘গ্রেফতারকৃতরা কোন জঙ্গি সংগঠনের সাথে সংশ্লিষ্ট তা নিশ্চিত নই। তবে তারা আন্তর্জাতিক কোন জঙ্গি সংগঠনকে অনুসরণ করছে বলে ধারণা করছি। এ বিষয়ে খোঁজ খবর নেয়া হচ্ছে। ’

পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট সুত্রে জানা যায়, কুমিল্লার তীরচরগ্রাম এলাকায় চেকপোস্টে তল্লাশি চলাকালে পুলিশের ওপর হামলার সময় দু জঙ্গিকে আটক করা হয়। তাদের তথ্যের ভিত্তিতে মিরসরাই আস্তানার সন্ধান মিলে।

এরপর এ অভিযান চালানো হয়।

রিদওয়ান মঞ্জিলের মালিক রিদওয়ান উদ্দিন বলেন, গত ফেব্রুয়ারি মাসে তার দ্বিতলা ভবনের নিচ তলা ভাড়া নেয় কামাল এবং মাহমুদ। এ নামেই তারা বাড়ি মালিকের কাছে পরিচয়পত্র জানা দেয়। বাসা ভাড়া নেয়ার সময় তারা নিজেদের কাপড় ব্যবসায়ী হিসেবে পরিচয় দেয়। এ বাসায় কিছু দিন শিশু, একজন নারী এবং দু জন পুরুষ বসবাস করত। গত ২৭ ফেব্রুয়ারি বেড়াতে যাওয়ার কথা বলে নারী ও শিশুরা চলে যায়। এরপর তারা আর ফেরেনি। গত সোমবার কামাল ও মাহমুদ বাসা থেকে বের হয়। পরে তারা কুমিল্লায় গ্রেফতার হয়। গ্রেফতার হওয়ার পর বিভিন্ন গনমাধ্যম সুত্রে জানতে পারি দু জন জঙ্গি হাসান ও জসিম।

আমাদের মিরসরাই প্রতিনিধি এম আনোয়ার হোসেন বলেন, কুমিল্লায় গ্রেফতার হওয়া জঙ্গি জসিম উদ্দিন ও হাসানের স্বীকারোক্তি ভিত্তিতে মঙ্গলবার রাত থেকে মিরসরাই সদরের রিদওয়ান মঞ্জিলে অভিযান চালানো হয়। ওই যৌথ অভিযানে পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিট, চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ ও সিএমপির বোম ডিসপোজাল ইউনিট অংশগ্রহণ করে। বুধবার দুপুরে অভিযান সমাপ্তি করেন চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ সুপার নুর এ আলম মিনা। অভিযান শেষে প্রেস ব্রিফিং করেন তিনি।

এসময় উপস্থিত ছিলেন র‌্যাব-৭ ফেনী ক্যাম্পের ইনচার্জ শাফায়াত জামিল, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মশিউদ্দৌলা রেজা, মিরসরাই সার্কেলের সহকারি পুলিশ সপার মাহবুবুর রহমান প্রমুখ।

বিডি প্রতিদিন/ সালাহ উদ্দীন

 

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow