Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ২৩ এপ্রিল, ২০১৮ ০১:২৪ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ২৩ এপ্রিল, ২০১৮ ০৯:০১
তুরাগ বাসে ছাত্রী ধর্ষণচেষ্টা, অর্ধশতাধিক বাস আটক শিক্ষার্থীদের
অনলাইন ডেস্ক
তুরাগ বাসে ছাত্রী ধর্ষণচেষ্টা, অর্ধশতাধিক বাস আটক শিক্ষার্থীদের
প্রতীকী ছবি

উত্তরা ইউনিভার্সিটির এক ছাত্রীকে রাজধানীর তুরাগ পরিবহনের একটি বাসে ধর্ষণচেষ্টার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে শিক্ষার্থীরা।

এছাড়া রবিবার উত্তরা ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরা দুপুর ১২টা থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত প্রায় অর্ধশতাধিক তুরাগ বাস আটক করে। এসময় বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা আসামি গ্রেফতার এবং আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য বিভিন্ন স্লোগান সম্বলিত প্ল্যাকার্ড নিয়ে স্লোগান দেয়।

জানা গেছে, শনিবার দুপুরে উত্তরা ৬নং সেক্টরে উত্তরা ইউনিভার্সিটির ক্যাম্পাসে আসার জন্য উত্তর বাড্ডা থেকে তুরাগ পরিবহনের একটি বাসে উঠেন। এ সময় বাসে যাত্রী ছিল মাত্র ৭-৮ জন। এ সময় নাটকীয়ভাবে পরবর্তী স্টপেজগুলোতে বাস সামনে যাবে না বলে যাত্রীদেরকে নামাতে থাকে এবং নতুন কোনো যাত্রী উঠানো বন্ধ রাখে। পরে ওই ছাত্রীর সন্দেহ হলে তিনি বাস থেকে নামতে চেষ্টা করলে বাসের হেলপার দরজা বন্ধ করে দেয়।কনট্রাক্টর তার হাত ধরে টানাটানি শুরু করে। কনট্রাক্টর-হেলপারের সঙ্গে ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে চলন্ত গাড়ি থেকে লাফিয়ে নেমে আসেন ওই ছাত্রী। তিনি অন্য একটি বাসে চড়ে ইউনিভার্সিটির ক্যাম্পাসে এসে বিষয়টি কর্তৃপক্ষকে জানালে কর্তৃপক্ষ আশানুরূপ কোনো সমাধান দিতে পারেনি।

পরবর্তীতে সহপাঠী ছাত্রছাত্রীরা বিষয়টি জেনে আইনগত সহযোগিতার জন্য কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ করে। কোনোভাবে কোনো সুরাহা না হওয়ায় রবিবার দুপুরে তারা ওই বাসটি ও হেলপার কনট্রাক্টরকে আটকের দাবিতে রাস্তায় মানববন্ধন করে।

উত্তরা পূর্ব থানার ওসি নূরে আলম সিদ্দিকী জানান, গুলশান থানা এলাকায় ছাত্রীর হাত ধরে টানাটানির একটি ঘটনা তিনি শুনেছেন এবং এ বিষয়ে গুলশান থানায় আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন আছে। তিনি আরও জানান, যেহেতু ইউনিভার্সিটি উত্তরা পূর্ব থানা এলাকায় তাই এ এলাকায় ছাত্রছাত্রীরা মানববন্ধন করেছে।

বিডিপ্রতিদিন/ ই-জাহান

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow