Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ২৬ এপ্রিল, ২০১৮ ১৩:৫২ অনলাইন ভার্সন
খুলনা সিটি নির্বাচন
বিএনপির মেয়রপ্রার্থী মঞ্জুর ১৯ দফা ইশতেহার ঘোষণা
নিজস্ব প্রতিবেদক, খুলনা
বিএনপির মেয়রপ্রার্থী মঞ্জুর ১৯ দফা ইশতেহার ঘোষণা

‘গ্রিন-ক্লিন খুলনা গড়া’র লক্ষ্যে বিএনপির মেয়র প্রার্থী নজরুল ইসলাম মঞ্জু ১৯ দফা ইশতেহার ঘোষনা করেছেন। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে মহানগরীর কেডি ঘোষ রোডের দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে তিনি এ ইশতেহার ঘোষণা করেন।

ইশতেহারের তিনি বলেন, খুলনার উন্নয়নে ৫০ বছরের পরিকল্পনা নিয়ে পরিবেশ বান্ধব সবুজ নগরী গড়ে তোলা হবে। গ্রিন সিটি গড়তে যে সকল নাগরিক সহায়তা করবেন, তাদের হোল্ডিং ট্যাক্সে ছাড় দেয়া হবে। 

তিনি বলেন, মহানগরীতে নাগরিক শাসন প্রতিষ্ঠা, অভিজ্ঞ ব্যক্তিদের নিয়ে পরামর্শক পরিষদ গড়ে তোলা হবে। নাগরিক মর্যাদা ও সম্মান সংরক্ষণে শিক্ষা, শিল্প-সাহিত্য, গনমাধ্যম ও জ্ঞান-বিজ্ঞানে বিশেষ অবদান রাখায় গুণীজন সম্মাননা দেয়া হবে।

নজরুল ইসলাম মঞ্জু বলেন, ‘মেয়র নির্বাচিত হলে আমি শিশু-বয়ষ্ক ও প্রতিবন্ধী সহায়ক পরিকল্পনা, ক্রীড়া বিনোদন ও শরীর চর্চার সুযোগ সৃষ্টি, ভেজাল মুক্ত বিশুদ্ধ খাদ্য সরবরাহ, মহানগরীর সড়ক উন্নয়ন ও বর্জ্য-বৃষ্টির পানি নিষ্কাশন, শিক্ষা ব্যবস্থার উন্নয়নে কাজ করবো।’ 

বিএনপির মেয়র প্রার্থীর ইশতেহারে আরো রয়েছে, জলবায়ু পরিবর্তনজনিত পরিস্থিতি মোকাবেলা, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির ঐতিহ্য সংরক্ষণ, মাদক নির্মূল, খালিশপুর শিল্পাঞ্চল পুনরুজ্জীবনের পদক্ষেপ, শিল্প ও কলকারখানা স্থাপনে সহযোগিতা, সুন্দরবন রক্ষায় ভূমিকা গ্রহণ। 

তিনি অভিযোগ করে বলেন, ‘আওয়ামী লীগ মেয়র প্রার্থী তালুকদার আব্দুল খালেক বিভিন্ন সময়ে বলেছেন সিটি করপোরেশনে মেয়র থাকাকালীন সময়ে তিনি ৭০০ থেকে ১ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ ও বিভিন্ন উন্নয়ন খাতে ২৭৫ কোটি ব্যয় করেছেন। কিন্তু এটা হচ্ছে নির্বাচনী চটকদারিতা ও সম্পূর্ণ মিথ্যা। ২০০৮-০৯ থেকে ২০১২-১৩ অর্থবছরে তালুকদার আব্দুল খালেক মাত্র ৮০ কোটি ৪৮ লাখ টাকা থোক ও বিশেষ বরাদ্দ পেয়েছিলেন। এরপর বিএনপির মেয়র মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান মনি দায়িত্ব গ্রহণকালে সিটি করপোরেশনের ফান্ডে মাত্র ১৫ কোটি টাকা ছিল। তাহলে এত টাকা কোথায় গেল।' 

ইশতেহার ঘোষণার সময় উপস্থিত ছিলেন বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ও ২০ দলীয় জোটের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির প্রধান সমন্বয়ক গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, সমন্বয়কারী অ্যাডভোকেট শফিকুল আলম মনা, সদস্য সচিব জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি অ্যাডভোকেট শাহ আলম, মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি সাহারুজ্জামান মোর্তুজা, জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আমির এজাজ খান, সাবেক এমপি সেকেন্দার আলী ডালিম, খেলাফত মজলিসের কেন্দ্রীয় নায়েবে আমীর মাওলানা সাখাওয়াত হোসেন, বিএনপির নির্বাচন পরিচালনা মিডিয়া কমিটির আহ্বায়ক অধ্যক্ষ তারিকুল ইসলাম, সদস্য সচিব এহতেশামুল হক শাওন।  

বিডি-প্রতিদিন/২৬ এপ্রিল, ২০১৮/মাহবুব

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow