Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ১৬ জুলাই, ২০১৮ ১২:২৫ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ১৬ জুলাই, ২০১৮ ১৩:৩৯
যুবলীগ নেতাকে হত্যার আগে সিসিটিভি বন্ধ করে দেয় খুনিরা
অনলাইন ডেস্ক
যুবলীগ নেতাকে হত্যার আগে সিসিটিভি বন্ধ করে দেয় খুনিরা

রাজধানীর বনানীতে যুবলীগ নেতা কাজী রাশেদকে (৩২) পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়। কারণ হত্যার আগেই পুরো এলাকার সিসিটিভি ক্যামেরার সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়।

ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (উত্তর) বিভাগের উপ-কমিশনার মশিউর রহমান জানান, এটা পরিকল্পিত হত্যা। হত্যার আগে সন্ত্রাসীরা পুরো এলাকার সিসিটিভি সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছিল। যে পার্টি অফিসে বসে তারা আড্ডা দিত সেখানেরও সিটিটিভির সংযোগ বিচ্ছিন্ন ছিল। এ পার্টি অফিসেই তাকে হত্যা করা হতে পারে। অথবা অন্য কোথাও রাশেদকে হত্যা করে তার লাশ বাড়ির পাশে রেখে গেছে।

রবিবার সকাল ৮টার দিকে বনানী থানার বন ভবনের পেছনের গলি থেকে কাজী রাশেদের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। শনিবার রাতের যে কোনো সময় তাকে খুন করা হয়ে থাকতে পারে বলে ধারনা করছে পুলিশ। এ ঘটনায় তার বাবা আবুল হোসেন বাদী হয়ে যুবলীগ নেতা সোহেল ও জাকিরসহ পাঁচজনকে আসামি করে মামলা করেছেন।

কাজী রাশেদের বাবা আবুল হোসেন বলেন, রাশেদ ২০ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ছিল। রাশেদ ও সোহেল দীর্ঘদিন ধরে একসঙ্গে যুবলীগের রাজনীতি করলেও ৩ বছর ধরে তাদের মধ্যে দ্বন্দ্ব চলে আসছিল। বেশ কয়েকবার রাশেদকে মারধর করা হয়েছে। হত্যারও হুমকি দেয়া হয়েছে।

বিডি প্রতিদিন/ফারজানা

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow