Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ২০ জুলাই, ২০১৮ ২২:৫৬ অনলাইন ভার্সন
প্রধানমন্ত্রীর সংবর্ধনাকে নান্দনিক করতে যুবলীগের ব্যতিক্রমী উদ্যোগ
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রধানমন্ত্রীর সংবর্ধনাকে নান্দনিক করতে যুবলীগের ব্যতিক্রমী উদ্যোগ

আগামীকাল শনিবার রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গণসংবর্ধনাকে নান্দনিক করতে ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নিয়েছে যুবলীগ। সংবর্ধনা অনুষ্ঠান স্থলের সামনে হাতে এক ফুট সম জাতীয় পতাকা, এক ফুট সম বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার ছবি, গায়ে সবুজ গেঞ্জি, মাথায় সবুজ ক্যাপ। কখনো কখনো জাতীয় পতাকা আবার কখনো প্রধানমন্ত্রীর ছবি এক সঙ্গে উচিয়ে নাড়ানো হবে।
যুবলীগ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশিদের নির্দেশে এতে নেতৃত্ব দেবেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট। সংবর্ধনাস্থলে যুবলীগের প্রকাশনা ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান যুব জাগরণের তিনটি স্টল বসানো হবে। এতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওপর লেখা বিভিন্ন বই, এমনকি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিজের লেখা বইসহ যুবলীগের ৬শটির মতো প্রকাশনা সেখানে স্থান পাবে। যুবলীগ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরী বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, বঙ্গবন্ধুকন্যা রাষ্ট্র নায়ক শেখ হাসিনাকে শনিবার সংবর্ধণা দেবে। সেই সংবর্ধনাকে দৃষ্টি নন্দন করে তুলতে আমরা ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নিয়েছি। সমাবেশের সামনে যুবলীগের ২০ হাজার নেতাকর্মীর হাতে দলীয় ও জাতীয় পতাকা থাকবে। একই সঙ্গে দলীয় সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ২০ হাজার ছবি রাখা হবে। ক্ষনে ক্ষনে দলীয়, জাতীয় ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি নেড়ে আগত অতিথিদের উৎসাহ দেয়া হবে। সে জন্য দলীয় নেতাকর্মীদের বিশেষ নিদের্শনা দিয়েছি।


উন্নয়ন ও অর্জনে অসাধারণ অবদান রাখায় তথা মহাকাশে বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইটের সফল উৎক্ষেপণ, বাংলাদেশের স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণ, অস্ট্রেলিয়ায় গ্লোবাল উইমেনস লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ড এবং সর্বশেষ ভারতের কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডিলিট ডিগ্রি অর্জন করায় তিন বারের প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনাকে এ সংবর্ধনা দেওয়া হবে। গণসংবর্ধনায় দলের পক্ষ থেকে শেখ হাসিনাকে সম্মাননাপত্র দেওয়া হবে। দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এ সম্মাননাপত্র পাঠ করে প্রধানমন্ত্রীকে উপহার দেবেন।
যুবলীগ ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট বলেন, যুবলীগ চেয়ারম্যানের নিদের্শে রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার জনসভাকে দৃষ্টি নন্দন ও আগত নেতাকর্মীদের উৎসাহ দিতে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগ ব্যাপক প্রস্তুতি শেষ করেছে। সকাল ৯টা থেকে যুবলীগের নেতাকর্মীরা সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে প্রবেশ করবে। সভামঞ্চে যখন রাষ্ট্র নায়ক শেখ হাসিনা আসবেন তখন আমরা জাতির পিতার কন্যার ছবি প্রদর্শন করবো। আমরা চাই সংবর্ধনাকে দৃষ্টি নন্দন করতে। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা সন্ত্রাস ও জঙ্গি দমনে বিশ্বনেতাদের প্রশংসা কুড়িয়েছেন। মিয়ানমারে জাতিগত সহিংসতায় পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা মুসলিমদের আশ্রয় দিয়ে সারা বিশ্বে হয়েছেন প্রশংসিত। শান্তি, শিক্ষা, সম্প্রীতিসহ প্রতিটি ক্ষেত্রেই বাংলাদেশের সুনাম ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্বব্যাপী। যা সম্ভব হয়েছে তার দূরদর্শিতা ও দেশের প্রতি নিঃস্বার্থ ভালোবাসার কারণে। তার নেতৃত্বে বাংলাদেশের ধারাবাহিক উন্নতির পাশাপাশি শেখ হাসিনার ঝুলিতে জমেছে অনেকগুলো অর্জন। পেয়েছেন আন্তর্জাতিক অনেক সম্মাননা পদক। তার নেতৃত্বেই দেশ আজ মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয়েছে।
যুবলীগ ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ কয়েক দফা বর্ধিত সভা শেষ করেছে।

আজও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের বিশেষ বর্ধিত সভায় দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন প্রশংসা করে বলেন, অতীতেও আওয়ামী লীগের যেকোনো কর্মসূচিতে যুবলীগ বড় ভূমিকা পালন করেছে। প্রধানমন্ত্রীর সংবর্ধনায়ও যুবলীগ সেই অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে বলে আমি আশা করি।
যুবলীগের চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরী বলেন, শনিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সংবর্ধনা। রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা আরেকবার ক্ষমতায় আনাই সব থেকে বড় সংবর্ধনা। ভূপৃষ্ঠ থেকে মহাকাশে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট সবক্ষেত্রে শেখ হাসিনার অবদান আছে। মানুষের সাধারণ জ্ঞান একটি অসাধারণ জ্ঞান মন্তব্য করে ওমর ফারুক চৌধুরী বলেন, সারাবিশ্বের জ্ঞান আজকাল গৃহকর্মীর মধ্যেও রয়েছে। উন্নয়ন হয়েছে কিনা সেটা সাধারণ জ্ঞানে বিবেচনা করে জনগণ শেখ হাসিনাকে আবারও ভোট দিয়ে নির্বাচিত করবে।  

বিডি-প্রতিদিন/ সালাহ উদ্দীন

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow