Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ৮ নভেম্বর, ২০১৮ ১৯:১১ অনলাইন ভার্সন
টাঙ্গাইলে গণধর্ষণের ঘটনা ধামাচাপা দেয়ায় ৩ মাতবর কারাগারে
টাঙ্গাইল প্রতিনিধি
টাঙ্গাইলে গণধর্ষণের ঘটনা ধামাচাপা দেয়ায় ৩ মাতবর কারাগারে

টাঙ্গাইলের ধনবাড়ীতে এসএসসি পরীক্ষার্থী এক স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণের ঘটনা ধামাচাপা দেয়ায় গ্রেফতার তিন মাতবরকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।  বৃহস্পতিবার ৭ দিনের রিমান্ড চেয়ে টাঙ্গাইল নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে প্রেরণ করা হলে আদালত রিমান্ড না মুঞ্জুর তাদেরকে জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন। 

গ্রেফতার তিন মাতবর হলেন, ধনাবড়ী পৌর শহরে চারলাষ চৌরাস্তা এলাকার মৃত বেলায়েত হোসেনের ছেলে আব্দুর রহমান (৫৮), ধনবাড়ী বাজার এলাকার মোজাম্মেল হকের ছেলে মাজহারুল হক (২৫) ও বন্দ টাকুরিয়া গ্রামের মৃত সোহরাব আলীর ছেলে মো. জালু মিয়া ওরফে জালু ড্রাইবার (৪৫)। 

ধনবাড়ী থানার পুলিশের উপ-পরিদর্শক এসআই হান্নান জানান, বুধবার রাতে অভিযান চালিয়ে গণধর্ষণের ঘটনা ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টাকারী তিন গ্রেফতার করা হয়। 

পুলিশ জানায়, এই ঘটনায় বৃহস্পতিবার আদালতে উপস্থিত হয়ে ২২ ধারায় জাবানবন্দি প্রদান করেছে ওই স্কুলছাত্রী।

উল্লেখ্য, গত ২৭ অক্টোবর ওই শিক্ষার্থীকে পরীক্ষার সাজেশন দেয়ার কথা বলে মোবাইলে ডেকে নিয়ে ধনবাড়ী বাগান বাড়ী লিচু বাগান ছাত্রাবাসে নিয়ে ১১ জন বখাটে রাতভর পালাক্রমে ধর্ষণ করে।  পরদিন সকালে এ ঘটনা কাউকে না বলার হুমকি দিয়ে ছেড়ে ধর্ষকরা। পরে ওই মেয়ে বাসায় গিয়ে তার বাবা-মায়ের কাছে পুরো ঘটনাটি খুলে বলে।  বিষয়টি জানাজানি হলে প্রভাবশালী কতিপয় মাতবর ঘটনাটি মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করে এবং বাবা-মাকে জিম্মি করে মেয়েটিকে ময়মনসিংহের একটি হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা প্রদান করে।  

পরে গত বুধবার পুলিশ পাহারায় ধনবাড়ী থানায় গিয়ে ওই স্কুলছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে ১১ ধর্ষকসহ ১৬ জনকে আসামী করে ধর্ষণ মামলা করেন।  এ ঘটানায় তিন মাতবরকে গ্রেফতার করলেও এখনো মূল ধর্ষণকারীদের গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

এ ব্যাপারে ধনবাড়ী থানার পরিদর্শক মজিবর রহমান বলেন, গণধর্ষণের ঘটনা ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টাকারী তিন মাতবরকে গ্রেফতার করা হয়েছে।  বাকী আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। 

বিডি-প্রতিদিন/০৮ নভেম্বর/বাজিত হোসেন

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow