Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : রবিবার, ৫ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৪ জুন, ২০১৬ ২৩:১০
রমজানে প্রশাসনের ‘জিরো ট্রলারেন্স’
তালিকায় ২০০ ছিনতাইকারী অর্ধশত পকেটমার
মুহাম্মদ সেলিম, চট্টগ্রাম

রমজান মাসে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে ‘জিরো ট্রলারেন্স’-এ থাকবে চট্টগ্রামের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। ছিনতাইকারী, পকেটমারের তালিকা তৈরি করে অভিযান চালানোর পাশাপাশি নগরীর ছিনতাই প্রবণ এলাকায় টহল বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া রমজান জুড়ে নগরীর বিভিন্ন পয়েন্টে ‘ব্লক রেইড’র সঙ্গে বিভিন্ন শপিং মল ও ফুটপাথের দোকানগুলোতে আসা ক্রেতাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে নিয়োজিত থাকছে সাদা পোশাকের পুলিশ। সিএমপির সার্বিক প্রস্তুতি নিয়ে অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (গণসংযোগ) আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘রমজান মাসে অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে সিএমপি। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে নিয়মিত পুলিশ সদস্যের পাশাপাশি অতিরিক্ত ফোর্স দায়িত্ব পালন করবে।’ কোতোয়ালি থানার ওসি জসিম উদ্দিন বলেন, ‘রমজানে ছিনতাইকারী ও পকেটমারদের অপতত্পরতা ঠেকাতে তালিকা ধরে অভিযান শুরু করা হয়েছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সূত্রে জানা যায়, পবিত্র রমজান মাসে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে চট্টগ্রামের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। কেনাকাটা করতে আসা ক্রেতাদের ছিনতাই এবং পকেটমারদের দৌরাত্ম্য ঠেকাতে পেশাদার ও অপেশাদার অপরাধীদের পৃথক তালিকা তৈরি করা হয়েছে। রমজানকে সামনে রেখে তৈরি করা এ তালিকায় ২০০ পেশাদার ও অপেশাদার ছিনতাইকারী এবং অর্ধশত পকেটমার রয়েছে। পকেটমারদের তালিকায় ২০ জন নারী পকেটমার সদস্যও রয়েছে। এ ছাড়া এ তালিকায় নগরীর প্রায় ৬০টি স্পটকে ছিনতাই প্রবণ এলাকা হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। এ স্পটগুলোর মধ্যে ২০টিকে অধিক ছিনতাই প্রবণ এলাকা হিসেবে চিহ্নিত করা হয়।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow