Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৭ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপডেট : ৭ জুন, ২০১৬ ০২:১১
রাজধানীতে সিটিংয়ের নামে গণপরিবহনে প্রতারণা
ফ্লাইওভার পার হতেই লাগে ২৫ টাকা
মাহবুবুল আলম

রাজধানীর বেশির ভাগ গণপরিবহনে ‘কম স্টপেজ’ কিংবা ‘সিটিং সার্ভিস’ লিখে সিটের বাইরে দাঁড় করানো যাত্রী নিয়ে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করা হচ্ছে। দীর্ঘদিন এ অবস্থা চললেও বিষয়টি দেখার কেউ নেই। আর যাত্রীরা বাধ্য হয়ে কষ্টের টাকা তুলে দিচ্ছেন কন্ডাক্টরের হাতে। জানা গেছে, রাজধানীর সার্ভিসগুলোর বেশির ভাগ যাত্রাস্থল মিরপুর। গাবতলী, আনসার ক্যাম্প, মিরপুর-১, ২, ১০ ও ১২ নম্বর হয়ে যেসব বাস কুড়িল, নতুনবাজার, উত্তরা এবং বনানী হয়ে বাড্ডা, বনশ্রী যাচ্ছে সেগুলোর সর্বনিম্ন ভাড়া ২৫ থেকে ৩০ টাকা। মিরপুর থেকে পল্টন, গুলিস্তান, যাত্রাবাড়ী, আজিমপুর কিংবা সদরঘাটের বাসগুলোতেও নেওয়া হচ্ছে ২৫ থেকে ৩০ টাকা। কিন্তু এতে সিটিংয়ের বালাই নেই। গাড়ির নির্দেশনা অনুযায়ী, এক সিট কেবল একজনের কাছে বিক্রি করার কথা বলা হলেও বিক্রি হচ্ছে অন্তত ৩ জনের কাছে। আবার লোকাল সার্ভিসের মতো যেখানে যাত্রী সিগন্যাল দিচ্ছে,  সেখানে থামানো হচ্ছে। ফলে বাড়তি ভাড়া দিয়ে যেমন যাত্রীরা কাঙ্ক্ষিত সেবা পাচ্ছেন না, তেমনি যেখানে সেখানে গাড়ি দাঁড় করিয়ে যানজটের নগরীতে আরও যানজট বাড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে। শরীফ খান নামে এক বেসরকারি চাকরিজীবী অভিযোগ করেন,মিরপুর কালশি থেকে কুড়িল বিশ্বরোড যেতে বাস ভাড়া গুণতে হয় ৫০ টাকা। আবার গাড়ি সিটিংয়ে চলার কথা থাকলেও চলে না। ইচ্ছে মতো যাত্রী তোলা হয়। রাজধানীর ইসিবি চত্বর থেকে শেওড়া বাজার যাতায়াতকারী এক গার্মেন্ট শ্রমিক মামুন জানান, তাকে শুধু জিল্লুর রহমান ফ্লাইওভার পার হতেই দিতে হয় ২৫ টাকা। তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন, এক কিলোমিটারের ভাড়া কি ২৫ টাকা হতে পারে। কেবল মামুন কিংবা শরীফ নয়, কথা হওয়া সবারই একই কথা।




up-arrow