Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শনিবার, ১১ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপডেট : ১০ জুন, ২০১৬ ২২:৫৪
‘আতঙ্ক সৃষ্টির জন্য গুপ্তহত্যায় মদদ দিচ্ছে বিএনপি-জামায়াত’
নিজস্ব প্রতিবেদক

জনমনে আতঙ্ক সৃষ্টি করতে সম্প্রতি বিভিন্ন গুপ্তহত্যায় মদদ দিচ্ছে বিএনপি-জামায়াত বলে অভিযোগ করেছে আওয়ামী লীগ। দলটির শীর্ষ নেতারা বলছেন, গুপ্ত হত্যাকারীদের দমনে আওয়ামী লীগ সরকার জিরো টলারেন্সে আছে। এসব করে সরকারের পতন ঘটানো যাবে না। এমনকি খালেদা জিয়ার কোনো লিংক থাকলে তার বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে। গতকাল সকালে ধানমন্ডির দলীয় সভাপতির কার্যালয়ে আওয়ামী লীগের ২০তম জাতীয় সম্মেলন প্রস্তুতির পৃথক দুটি উপ-কমিটির বৈঠকে সূচনা বক্তব্যে নেতারা এসব কথা বলেন। ঘোষণাপত্র উপকমিটির বৈঠকে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম বলেন, গুপ্তহত্যাকারীদের দমনে আওয়ামী লীগ সরকার জিরো টলারেন্সে আছে। এ ঘটনায় যেই জড়িত হোক না কেন, তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এমনকি খালেদা জিয়ার কোনো লিংক থাকলে তার বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

উপকমিটির নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন— মহীউদ্দীন খান আলমগীর, মাহবুব-উল আলম হানিফ, আবদুর রাজ্জাক, আহমদ হোসেন, বি এম মোজাম্মেল হক, আবু সাঈদ আলম মাহমুদ, ফরিদুন্নাহার লাইলী, আবদুস সোবহান গোলাপ, আবদুল মান্নান খান, র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী, মাহবুবুল  হক শাকিল প্রমুখ।  অন্যদিকে প্রচার-প্রকাশনা সভায় প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচটি ইমাম বলেন, যারা স্বাধীনতায় বিশ্বাসী নয়, যারা সমাজের শত্রু, মানুষের শত্রু, মানবতার শত্রু, এরা কখনো শোধরাবার নয়। এখন তাদের হাতে চাপাতি আর বন্দুক। আর এই পদ্ধতিতে প্রত্যেকটি জায়গাতে একই কায়দায় হত্যা করা হচ্ছে। এরা এমন কৌশল বের করেছে যে কত দ্রুত হত্যা করা যায়। তিনি বলেন, বিভিন্ন জায়গায় যতগুলো গুপ্তহত্যা হয়েছে তার প্রায়গুলোই গুছিয়ে এসেছে। আমরাও এই  বিষয়গুলো জানি। কিন্তু সব তথ্য প্রকাশ করা যায় না। কীভাবে কখন কোথায় হত্যা করা হচ্ছে এর যোগসূত্র খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে। এই যোগ সূত্র থেকে আমরা পাচ্ছি, শিবির এবং ছাত্রদল এবং তাদের মাথা যারা অর্থাৎ ছত্রছায়া দিচ্ছে যারা তারা হলেন জামায়াত এবং বিএনপি। তাদের সঙ্গে জামায়াতে ইসলামী হিন্দ, জামায়েতে ইসলামী পাকিস্তান, আল-কায়েদা, তালেবান, সিরিয়ার আইএস, মুসলিম ব্রাদার হুড, নাইজেরিয়ার বোকো হারাম, সোমালিয়ার আল-সাবাব— এরা একই সূত্রে গাঁথা, এরা মানবতার শত্রু। প্রচার সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেন, সরকারের কাছে দাবি জানাব— গুপ্তহত্যার জন্য বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়াকে প্রয়োজনে জিজ্ঞাসাবাদ করুন। তাহলে থলের বিড়াল বের হবে। গুপ্তহত্যাও কমে যাবে। আসলে সরকারকে অস্থিতিশীল করতেই এখন বেছে বেছে হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হচ্ছে। বৈঠকে এইচটি ইমাম, হাছান মাহমুদ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন উপ-প্রচার সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট তারানা হালিম, সাইমুল সরোয়ার কমল এমপি প্রমুখ।




এই পাতার আরো খবর
up-arrow