Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২৩ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২৩ জুন, ২০১৬ ০২:৩১
বৈদেশিক বিনিয়োগে দক্ষিণ এশিয়ায় বাংলাদেশ দ্বিতীয়
আঙ্কটাডের রিপোর্ট
নিজস্ব প্রতিবেদক

দেশে প্রথমবারের মতো এক বছরে বৈদেশিক বিনিয়োগ (এফডিআই) দুই বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়েছে। যা দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে ভারতের পর দ্বিতীয়।

২০১৫ সালে বাংলাদেশে ২২৩ কোটি ৫০ লাখ ডলারের এফডিআই এসেছে। স্থানীয় মুদ্রায় যা প্রায় ১৮ হাজার কোটি টাকা। এক বছরের ব্যবধানের এই বিনিয়োগ বেড়েছে ৪৪ শতাংশ। ২০১৪ সালে দেশে মোট এফডিআই এসেছিল ১৫৫ কোটি ১০ লাখ ডলার। গতকাল রাজধানীর মতিঝিলে বিনিয়োগ বোর্ডে আঙ্কটাডের ‘ওয়ার্ল্ড ইনভেস্টমেন্ট রিপোর্ট-২০১৬’ প্রকাশ করে এ তথ্য জানানো হয়। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত বছর দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে এফডিআই প্রবৃদ্ধি সবচেয়ে বেশি হয়েছে বাংলাদেশে। সার্ক অঞ্চলে ভারত বাদে বাকি দেশগুলোর সম্মিলিত এফডিআই বাংলাদেশে বেশি হয়েছে। মোট বিনিয়োগের মধ্যে নতুন খাতে বিনিয়োগ হিসেবে এসেছে প্রায় ৭০ কোটি ডলার, পুনঃ বিনিয়োগ হয়েছে ১১৪ কোটি ডলার ও ব্যাংকিং ঋণ হিসেবে এসেছে ৩৯ কোটি ডলার। খাত হিসেবে ২০১৫ সালে বাংলাদেশে সবচেয়ে বেশি এফডিআই এসেছে গ্যাস, বিদ্যুৎ ও পেট্রোলিয়াম খাতে। এসব খাতে বিদেশি বিনিয়োগ এসেছে ৫৭ কোটি ৪০ লাখ ডলারের। দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে টেক্সটাইল, তৈরি পোশাক শিল্প খাত (আরএমজি) ৪৪ কোটি ৩০ লাখ ডলার। এ ছাড়া টেলিকমিউনিকেশন খাতে ২৫ কোটি ৫০ লাখ ডলার, ব্যাংকিং খাতে ৩১ কোটি ডলার, খাদ্য উৎপাদন ১২ কোটি ৫০ লাখ ডলার, কৃষি ও মত্স্য খাতে ২ কোটি ৫০ লাখ ডলার এবং অন্যান্য খাতে ৫০ কোটি ৩০ লাখ ডলারের বিদেশি বিনিয়োগ এসেছে।

অনুষ্ঠানে প্রতিবেদনের বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক এম ইসমাইল হোসেন। তিনি বলেন, ২০১৫ সালে বিশ্ব অর্থনীতিতে এফডিআই বেড়েছে ৩৮ শতাংশ বা ১ দশমিক ৭৬ ট্রিলিয়ন ডলার। উন্নয়নশীল অর্থনীতিতে এফডিআইর পরিমাণ ৭৬৫ বিলিয়ন ছাড়িয়েছে, যা ২০১৪ সালের তুলনায় ৯ শতাংশ বেশি। যুক্তরাষ্ট্র ৩৮০ বিলিয়ন ডলার এফডিআই করে প্রথম স্থানে রয়েছে। হংকং ১৭৫ বিলিয়ন ও চীন ১৩৬ বিলিয়ন করে তার পরের অবস্থায় রয়েছে। তিনি বলেন, ২০১৬ সালে এফডিআই ১০ থেকে ১৫ ভাগ কমে যেতে পারে। বিশ্ব অর্থনীতিতে ভঙ্গুরতা, প্রবৃদ্ধি কমে যাওয়া, কার্যকরী ট্যাক্স পলিসিসহ বেশ কিছু প্রতিবন্ধকতার কারণে এফডিআই কমতে পারে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রীর জ্বালানি, বিদ্যুৎ ও খনিজ সম্পদ বিষয়ক উপদেষ্টা ড. তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী বলেন, এফডিআই ২ বিলিয়ন ডলার ছাড়ানোর মাধ্যমে আমরা সাহস সঞ্চার করতে পেরেছি, যা সামনে এগিয়ে যেতে সহায়তা করবে। বিশ্বের বড় অর্থনীতির দেশগুলোতে প্রবৃদ্ধি নেতিবাচক। সেখানে আমাদের অর্থনীতিতে প্রবৃদ্ধি গতি আশাব্যঞ্জক। ভবিষ্যতে আরও বেশি বিনিয়োগ হবে। সম্প্রতি ঘোষিত বাজেটে অবকাঠামো খাতে যে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে ভবিষ্যৎ বিনিয়োগ চিন্তা করেই করা হয়েছে।

বিনিয়োগ বোর্ডের নির্বাহী চেয়ারম্যান এস এ সামাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন অর্থনীতিবিদ জামালউদ্দিন আহমেদ, বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রধান অর্থনীতিবিদ বিরূপাক্ষ পাল প্রমুখ।

up-arrow