Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বুধবার, ২৬ জুলাই, ২০১৭

ঢাকা, বুধবার, ২৬ জুলাই, ২০১৭
প্রকাশ : সোমবার, ২৭ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২৬ জুন, ২০১৬ ২২:৩০
সিলেটে ঈদবাজারে নারী গোয়েন্দা দল
কমেছে যৌন হয়রানি চুরি ছিনতাই
নিজস্ব প্রতিবেদক, সিলেট

সিলেটে জমে উঠতে শুরু করেছে ঈদবাজার। নগরবাসীর মাঝে ঈদের কেনাকাটার ব্যস্ততার সঙ্গে সঙ্গে বাড়ছে পুলিশের টেনশন। ঈদের কেনাকাটা করতে আসা নগরবাসীর নিরাপত্তা নিয়ে উৎকণ্ঠিত পুলিশ। তবে কঠোর নজরদারি, জোরদার নিরাপত্তা টহল ও গোয়েন্দা তত্পরতার কারণে এখন পর্যন্ত নগরীতে বড় ধরনের কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। ঈদের কেনাকাটা করতে আসা নারী ক্রেতাদের যৌন হয়রানি (ইভ টিজিং) থেকে রক্ষা এবং ছদ্মবেশি প্রতারক ও চোরদের ধরতে মাঠে নামানো হয়েছে সিলেট মহানগর পুলিশের (এসএমপি) প্রশিক্ষিত নারী গোয়েন্দা দল। তারা ছদ্মবেশে মার্কেটে ঘুরে বেড়াচ্ছে বলে জানিয়েছেন মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার মো. রহমত উল্লাহ। এসএমপি সূত্রে জানা যায়, সিলেট নগরীর মার্কেটগুলোতে উপচেপড়া ভিড়ে নারী ক্রেতাদের নানা ধরনের হয়রানির শিকার হতে হয়। ভিড়ের মধ্যে নারীরা প্রায়ই যৌন হয়রানির শিকার হন। এছাড়া ঈদের সময় নগরীতে সক্রিয় হয়ে ওঠে নারী চোরচক্রের সদস্যরা। তারা ক্রেতা সেজে দোকান থেকে দামি কাপড় ও জিনিসপত্র নিয়ে কৌশলে চম্পট দেয়। ভিড়ের মধ্যে নারী ক্রেতাদের ব্যাগ ও মোবাইল ফোনও হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ পাওয়া যায় প্রায়ই।

এ বছর ঈদবাজারে নারী ক্রেতাদের নিরাপত্তা নিশ্চিতে মার্কেটগুলোতে টহলে নেমেছে  সাদা পোশাকধারী  নারী গোয়েন্দা পুলিশ। ৬ সদস্যেরওই গোয়েন্দা দলের সদস্যরা বিভিন্ন মার্কেটে ক্রেতাবেশে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। কোথাও নারী চোরচক্রের চিহ্নিত সদস্যাকে দেখতে পেলে তাকে অনুসরণ করে পুলিশের বিশেষ টিমকে জানিয়ে দিচ্ছেন। পরে  পোশাকধারী পুলিশ এসে তাদের গ্রেফতার করছে। শনিবার রাতে নগরীর জিন্দাবাজার থেকে নারী চোর চক্রের দুই সদস্যকে গ্রেফতারও করা হয়েছে। এছাড়া কোথাও ইভ টিজিংয়ের দৃশ্য ধরা পড়লেও অ্যাকশনে যাচ্ছেন নারী গোয়েন্দা সদস্যরা। পোশাকধারী পুলিশের সহযোগিতায় বখাটেদের আটক করছে তারা। শুধু মার্কেটে নয়, এবার রমজানে রাস্তায়ও দায়িত্ব পালন করছেন এসএমপি’র নারী সদস্যরা। রাস্তায় যানজট নিয়ন্ত্রণ থেকে শুরু করে যানবাহন তল্লাশির কাজও করছেন তারা। সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার মো. রহমত উল্লাহ জানান— এসএমপিতে ১৬০ জন নারী পুলিশ সদস্য রয়েছেন। ঈদ সামনে রেখে নগরীর নিরাপত্তা নিশ্চিতে তাদের সবাই সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত পুরুষ পুলিশ সদস্যদের সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছেন। নগরীর ব্যস্ততম পয়েন্ট, বড় বড় বিপণী বিতানে পোশাকধারী নারী পুলিশরা দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি নারী পুলিশদের বিশেষ গোয়েন্দা দলও মাঠে কাজ করছে। তাদের তত্পরতার কারণে সিলেটে ঈদের কেনাকাটায় নারী ক্রেতাদের যৌন হয়রানির ঘটনা কমে এসেছে।

up-arrow