Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ২৩ অক্টোবর, ২০১৭

ঢাকা, সোমবার, ২৩ অক্টোবর, ২০১৭
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২৮ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২৭ জুন, ২০১৬ ২৩:৫৪
খুলনা রেঞ্জের ডিআইজি
লাঠি-বাঁশির বিষয়ে ভিন্ন ব্যাখ্যা দেওয়ার চেষ্টা চলছে
নিজস্ব প্রতিবেদক, যশোর

পুলিশের খুলনা রেঞ্জের ডিআইজি এম মনিরুজ্জামান বলেছেন, লাঠি-বাঁশির বিষয়টি কতিপয় জ্ঞানপাপী ভিন্নভাবে ব্যাখ্যা দেওয়ার চেষ্টা করছে। তিনি বলেন, এই বাঁশের লাঠি দিয়ে তিতুমীরের বাঁশের কেল্লা হয়েছে, ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলন হয়েছে।

এই বাঁশের লাঠি দিয়েই পাকিস্তানি হানাদারদের তাড়ানো হয়েছে। তাই লাঠি-বাঁশির ভিন্ন ব্যাখ্যা দেওয়ার সুযোগ নেই। সন্ত্রাসী-জঙ্গিদের প্রতি কঠোর হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে ডিআইজি বলেন, ‘স্বজন হারানোর বেদনায় এ দেশের আকাশ-বাতাস আর ভারী হতে দেব না। আমরা জানি, আপনার বাড়ি কোথায়, ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান কোথায়, আপনার আত্মীয়পরিজন কোথায়। আমার কলিজায় আঘাত করে যদি রক্ত ঝরান, সেটা শতগুণে আপনার কলিজায় বিঁধবে। আমরা জানি কীভাবে প্রতিশোধ নিতে হয়। বাংলার ১৬ কোটি মানুষ জানে কীভাবে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হয়। ’ গতকাল যশোরের টাউন হল ময়দানে জেলা পুলিশ ও কমিউনিটি পুলিশিংয়ের উদ্যোগে আয়োজিত সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদবিরোধী মহাসমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন তিনি। যশোরের পুলিশ সুপার আনিসুর রহমানের সভাপতিত্বে সমাবেশে র‌্যাবের পরিচালক খন্দকার রফিকুল ইসলাম, খুলনা মাগুরা, বাগেরহাট, নড়াইল, সাতক্ষীরার পুলিশ সুপারবৃন্দ, যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলন, যশোর পৌরসভার মেয়র জহিরুল ইসলাম চাকলাদার রেন্টু, পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি অসীম কুণ্ডু, জেলা সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি ডি এম শহিদুজ্জামান, জেলা কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির সভাপতি আলহাজ আলী আকবর প্রমুখ বক্তৃতা করেন। পরে জঙ্গি-সন্ত্রাসী প্রতিরোধে উপস্থিত জনতার হাতে বাঁশের লাঠি ও বাঁশি বিতরণ করা হয়।

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় ডিআইজি বলেন, ‘পাকিস্তানে চারটি শাসনব্যবস্থা রয়েছে। তালেবানের শাসনব্যবস্থা, সামরিক বাহিনীর শাসনব্যবস্থা, সো কলড রাজনীতিবিদদের শাসনব্যবস্থা এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের শাসনব্যবস্থা। আপনারা কি চান বাংলাদেশে জঙ্গিবাদ আমদানি করে এ ধরনের শাসনব্যবস্থা আসুক আর আমরা তা মেনে নিই? আজকে যারা বাংলাদেশকে প্রেসক্রিপশন দিতে আসে, তাদের দেশে নাইট ক্লাবে মাত্র একজন মানুষ ৫০ জনকে গুলি করে হত্যা করছে। সেটা তারা প্রতিরোধ করতে পারে না। ’ ডিআইজি বলেন, ‘তারা যেটা পাকিস্তানে, আফগানিস্তানে করেছে, সেটা বাংলাদেশেও করতে চায়। জঙ্গিবাদের ধুয়া তুলে অস্থিতিশীলতা তৈরি করে সেন্টমার্টিনে সামরিক ঘাঁটি গড়তে চায়। বাংলাদেশে পাকিস্তানের মতো চারটি সরকার গঠন করতে চায়। ’

এই পাতার আরো খবর
up-arrow