Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৩ মার্চ, ২০১৭

প্রকাশ : সোমবার, ৪ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৩ জুলাই, ২০১৬ ২৩:৫২
নজরকাড়া ইফতারি বসুন্ধরা সিটিতে
বাদল নূর
নজরকাড়া ইফতারি বসুন্ধরা সিটিতে

কেউ দাঁড়িয়ে, কেউ টেবিলে বসে, আবার কেউবা পাটিতে বসে ইফতার করছিলেন। এক দল, দুই দল মানুষ নয়, অসংখ্য মানুষ অসংখ্য দলে ইফতারে বসেছিলেন। এ ছিল অন্য রকম দৃশ্য। গত শনিবারের এ দৃশ্যটি দেখা যায় দেশের সর্ববৃহৎ শপিং মল রাজধানীর বসুন্ধরা সিটিতে। সন্ধ্যা ঘনিয়ে আসার আগেই বসুন্ধরা সিটির অষ্টমতলার প্রতিটি দোকানের সামনে সাজিয়ে রাখা টেবিল ভর্তি হয়ে গিয়েছিল। জায়গা না হওয়ায় অনেকে খেজুরপাটিতে বসেছিলেন। সবমিলে ইফতারকে ঘিরে ছিল এক অন্যরকম পরিবেশ। অংশগ্রহণকারীদের অনেকেই জানান, এখানে অনেকটা সুলভে নামি এবং নজরকাড়া ইফতারি মেলায় এমনিতেই ভিড় জমে। তার ওপর রোজার শেষ পর্যায়ে ইফতারি আয়োজন আরও জমজমাট হয়ে উঠেছে। সিটির অষ্টমতলা ঘুরে দেখা গেছে, ইন্ডিয়ান কিউজন নামের দোকানে প্রতি প্লেট ইফতারি দাম ৩০০ টাকা, যাতে আছে রাইস, বেগুনি, শসা, চিকেন, মালটা, আপেল, ভেজিটেবল, জুস ও চিকেন কারি। বোম্বে ফ্রাইডেতে প্রতি প্লেট ইফতারির দাম ২৫০ টাকা, যাতে আছে রাইস, খেজুর, শসা, চিকেন, বেগুনি ও গাজর। দিল্লি দরবারে প্রতি প্লেট ইফতারির দাম ৩৫০ টাকা। এ দোকানের ইফতারির মধ্যে আছে ফিন্নি, মাল্টা, ছোলা, চিকেন, খেজুর, তরমুজ, জিলাপি, আনারস, কলা, পেয়ারা, শসা ও পানি রাখা হয়। ইন্ডিয়ান ফেন্সিতে প্রতি প্লেট ইফতারির দাম ৩০০ টাকা। এতে সাতটি আইটেমের রাখা হয়। রাখা হয় শসা, ছোলা, খেজুর, মালটা, তরমুজ, আপেল ও পানিও। ব্রোস্ট অব গ্রিল নামক দোকানে প্রতি প্লেট ইফতারির দাম ৩০০ টাকা। ইফতারির মধ্যে আছে কলা, পেঁপে, ছোলা, জিলাপি, আনারস, তরমুজ, পেয়ারা, কাবাব, আম, আপেল, শসা ও নুডলস। লুচি এস পিজা নামের দোকানে একটি দইয়ের লাচ্চির দাম ১২০ টাকা। আমের লাচ্চির দাম ১২০ টাকা। এ দোকানে ইফতারির মধ্যে আছে শসা, তরমুজ, খেজুর, গাজর, বেগুনি, আপেল, মাল্টা, পেয়ারা, আম, কলা, ছোলা, পিয়াজু, চিকেন, পানি ও শরবত। ক্যান্টনমেন্ট থেকে শায়ন নামের একজন বসুন্ধরা সিটিতে এসেছিলেন শপিং করতে। তিনি বলেন, ইফতারির পরে শপিং করব। ধানমন্ডি থেকে জিসান নামের একজন এসেছিলেন শপিং করতে। তিনি বলেন, ১৫ রোজার পরে বসুন্ধরা সিটিতে ভিড় বেড়েছে। ইফতারি শেষে শপিং করবেন বলে জানান তিনিও। ক্রেতাদের এত ভিড়ে বসার সমস্যা হয়েছে বলে জানান তিনি। হাজারীবাগ থেকে স্ত্রী-সন্তান নিয়ে শপিং করতে এসেছিলেন মো. নাদিম হোসেন। রোজা রেখেছিলেন তিনি। ইফতারির সময় ঘনিয়ে আসায় বসুন্ধরা সিটির অষ্টমতলায় ইফতার করতে বসেন। ইফতারির পরে কেনাকাটা করবেন বলে জানান তিনি।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow