Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ১৮ ডিসেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, সোমবার, ১৮ ডিসেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১২ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১১ জুলাই, ২০১৬ ২৩:৩৯
স্রোতের মতো ফিরছে মানুষ
লঞ্চ-বাস টার্মিনালে যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড়
নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল
স্রোতের মতো ফিরছে মানুষ
দীর্ঘ ছুটি শেষে কর্মস্থলে ফিরছে মানুষ। গতকাল রাজধানীর কমলাপুর রেলস্টেশন থেকে তোলা ছবি —বাংলাদেশ প্রতিদিন

তিল ঠাঁই ছিল না বরিশাল নদীবন্দরে। বন্দরের বাইরের সড়কে প্রায় অর্ধ কিলোমিটারজুড়ে রিকশা-গাড়ির জট। একই অবস্থা বরিশালের কেন্দ্রীয় নথুল্লাবাদ বাস টার্মিনালে। প্রিয়জনদের সঙ্গে ঈদ উদযাপন শেষে মানুষের কর্মস্থলে ফেরার কারণে গতকাল বরিশালের বাস ও লঞ্চ টার্মিনালে যাত্রীদের ঢল নেমেছিল। গতকালও বরিশাল থেকে ১৪টি বিশাল লঞ্চ ও বিআইডব্লিউটিসির দুটি স্টিমার উপচেপড়া যাত্রী নিয়ে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে গেছে। দিবা সার্ভিসে গ্রীন লাইন নামে দুটি জাহাজ টইটম্বুর যাত্রী নিয়ে ঢাকার উদ্দেশে ছাড়ে। দক্ষিণাঞ্চলের বিভিন্ন জেলা-উপজেলা এবং নগরীর নথুল্লাবাদ কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল থেকেও বিরামহীনভাবে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যাচ্ছে যাত্রীবাহী বাস। বৃহস্পতিবার ঈদ উদযাপনের পর গত রবিবার থেকে সরকারি কর্মদিবস শুরু হয়। এ লক্ষ্যে শনিবার থেকেই কর্মস্থলমুখী মানুষের ঢল নামে। গতকালও এই ভিড় অব্যাহত ছিল। বিকালে বরিশাল নদীবন্দরে গিয়ে দেখা গেছে, স্রোতের মতো মানুষ ছুটছে ঢাকার লঞ্চের নির্ধারিত পন্টুনের দিকে।

পন্টুনে থাকা ১৪টি লঞ্চ বিকেল ৫টার মধ্যে যাত্রীতে টইটম্বুর হয়ে যায়। লঞ্চের ছাদ এমনকি প্রথম শ্রেণির যাত্রীদের কেবিনের সামনের স্থানও দখল করে নেয় যাত্রীরা। লঞ্চের কর্মচারীরা জানিয়েছেন, দুপুর ১২টার পর থেকেই যাত্রীরা লঞ্চে এসে ডেকের জায়গা দখল করতে শুরু করে। বিকেল ৫টার পর পন্টুনসহ আশপাশের এলাকা জনস্রোতে পরিণত হয়। অতিরিক্ত যাত্রী চাপের কারণে অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতি এড়াতে বিআইডব্লিউটিএর কর্মকর্তারা সন্ধ্যা ৭টার মধ্যে সব লঞ্চ পন্টুন ত্যাগ করার নির্দেশ দেয়।

সন্ধ্যা সোয়া ৭টার মধ্যে পর্যায়ক্রমে ১৪টি লঞ্চ বরিশাল নদীবন্দর ত্যাগ করে। ভিড়ের কারণে প্রথম শ্রেণির যাত্রীসহ অনেক যাত্রী লঞ্চে উঠতে না পারায় ঢাকায় যেতে পারেননি। বিআইডব্লিউটিএর কর্মকর্তা-কর্মচারী ছাড়াও রোভার ও বয়েজ স্কাউট এবং স্বেচ্ছাসেবক দল নৌবন্দরে শৃঙ্খলা রক্ষার দায়িত্ব পালন করেছে। এ ছাড়াও মোতায়েন ছিল র‌্যাব ও পুলিশ। বিআইডব্লিউটিএর ট্রাফিক ইন্সপেক্টর মো. রিয়াদ হোসেন জানান, একজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নদীবন্দরের দায়িত্ব পালন করছেন। বরিশাল বিআইডব্লিউটিসির সহকারী মহাব্যবস্থাপক সৈয়দ আবুল কালাম জানান, “গতকাল মোড়লগঞ্জ থেকে আসা ‘পিএস অস্ট্রিচ এবং মাছুয়াখালী থেকে ছেড়ে আসা ‘পিএস লেপচা’ বরিশাল হয়ে ঢাকার  উদ্দেশে ছেড়ে গেছে। অন্যদিকে নথুল্লাবাদ কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালে গিয়ে দেখা গেছে, একের পর এক বাস ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যাচ্ছে। বিলাসবহুল পরিবহনের টিকিটবঞ্চিত যাত্রীরা মাইক্রোবাস, এমনকি ট্রাকে চাদর বিছিয়ে কাওরাকান্দি ফেরিঘাট পর্যন্ত যাচ্ছেন। ”

এই পাতার আরো খবর
up-arrow