Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : শুক্রবার, ১৫ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৫ জুলাই, ২০১৬ ০২:৫৪
সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ দেশে আতঙ্কের সৃষ্টি করেছে
গোলটেবিল আলোচনা
সাংস্কৃতিক প্রতিবেদক

বাঙালি সাংস্কৃতিক জোটের আয়োজনে অনুষ্ঠিত হলো ‘সাংস্কৃতিক আন্দোলন রুখতে পারে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ’ শীর্ষক গোলটেবিল আলোচনা। গতকাল জাতীয় প্রেসক্লাবে এ আলোচনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। বাঙালি সাংস্কৃতিক জোটের আহ্বায়ক সাইফুল আজম বাশারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ। আলোচনায় অংশ নেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, জাতিসংঘে বাংলাদেশের সাবেক স্থায়ী প্রতিনিধি আবুল মোমেন, নাট্যব্যক্তিত্ব ইনামুল হক, বাঙালি সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি চিত্রনায়ক আকবর খান পাঠান ফারুক, স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শিল্পী আবদুল জব্বার, মনোরঞ্জন ঘোষাল, চিত্রনায়িকা নূতন, নাট্যব্যক্তিত্ব এস এম মোহসীন, সোনারগাঁ লোক ও কারুশিল্প জাদুঘরের পরিচালক কবি রবীন্দ্র গোপ, ইউরোপ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম এ গনি প্রমুখ। বক্তারা বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যখন শান্তি প্রতিষ্ঠায় বিশ্বের বিভিন্ন দেশে নন্দিত হয়েছেন, তখন ঈর্ষান্বিত পক্ষটি দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্নের অপপ্রচেষ্টা করেই যাচ্ছে। ঢাকাসহ দেশের প্রতিটি জেলায় সাংস্কৃতিক বলয়ের মাধ্যমে গড়ে তুলতে হবে গণপ্রতিরোধ। সেই প্রতিরোধ রুখবে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ। তারা আরও বলেন, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ দেশে আতঙ্কের সৃষ্টি করেছে। সন্ত্রাসীরা এ দেশে টার্গেট কিলিং করে যাচ্ছে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সহশিক্ষা কার্যক্রমের অভাবে তরুণরা নানা অপকর্মে যুক্ত হচ্ছে। বক্তারা বলেন, সাংস্কৃতিক আন্দোলন রাজপথে নিয়ে যেতে হবে। মঞ্চনাটক, পথনাটক, সিনেমার মাধ্যমে জনগণকে জঙ্গিবাদবিরোধী বার্তা পৌঁছে দিতে হবে। জঙ্গিরা ইসলামের অপব্যাখ্যা দিয়ে ইসলামের অবমাননা করছে। একজন মুসলমান হিসেবেও এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো উচিত বলেও মন্তব্য করেন তারা।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow