Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : রবিবার, ১৭ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৬ জুলাই, ২০১৬ ২৩:২১
বদলে যাওয়ার অপেক্ষায় সিলেটের রাজনীতি
নতুন কমিটির খবরে চাঙ্গাভাব
নিজস্ব প্রতিবেদক, সিলেট

মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি দিয়ে চলছে সিলেট আওয়ামী লীগের কার্যক্রম। একই অবস্থা জাতীয় পার্টিতেও। আর আংশিক কমিটি দিয়ে চলছে বিএনপি। তবে এবার নেতৃত্বে পরিবর্তন ও পরিবর্ধন ঘটিয়ে রাজনৈতিক দলগুলো তাদের নেতা-কর্মীদের চাঙ্গা করার প্রক্রিয়া শুরু করেছে। সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটির বেশির ভাগ নেতাই দলীয় কাজে নিষ্ক্রিয়। হাতে গোনা কয়েকজন মিলে টেনে নিয়ে যাচ্ছেন দলকে। সামনে কেন্দ্রীয় সম্মেলন থাকায় এখনই জেলা ও মহানগর নতুন কমিটি হচ্ছে না। কেন্দ্রীয় সম্মেলনের পরই দলের ত্যাগী ও পরীক্ষিত নেতা-কর্মীদের সমন্বয়ে নতুন কমিটি আসার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী।

জেলা ও মহানগর যুবলীগের অবস্থা আওয়ামী লীগের মতোই। এক যুগের বেশি সময় ধরে মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি দিয়ে চলছে জেলা যুবলীগ। আর মেয়াদোত্তীর্ণ আহ্বায়ক কমিটি দিয়ে চলছে যুবলীগের মহানগর শাখা। তবে শিগগিরই সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন কমিটি  গঠনের প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছেন জেলা যুবলীগের সভাপতি শামীম আহমদ ও মহানগরের আহ্বায়ক আলম খান মুক্তি। সিলেট জেলা ও মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের কার্যক্রমও চলছে আংশিক কমিটি দিয়ে। শিগগিরই কমিটি পূর্ণাঙ্গের সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলা সভাপতি আফসার আজিজ ও মহানগরের সাধারণ সম্পাদক দেবাংশু দাস মিঠু। এক বছর আগে সিলেট জেলা ও মহানগর ছাত্রলীগের কমিটি ঘোষণা করা হয়। নানা ধরনের বিতর্কিত কর্মকাণ্ডের কারণে প্রায় চার মাস আগে স্থগিত করা হয় জেলা ছাত্রলীগের কমিটি। আর এক বছরেও পূর্ণাঙ্গ হয়নি মহানগরের আংশিক কমিটি। পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের ব্যাপারে কেন্দ্রকে তাগিদ দেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল আলীম তুষার। এদিকে, সিলেটে কোনো কার্যক্রম নেই জাতীয় পার্টির। অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্ব নিয়েই ব্যস্ত সংগঠনটির নেতা-কর্মীরা। মেয়াদোত্তীর্ণ আহ্বায়ক কমিটি দিয়েই চলছে জাতীয় সংসদের বিরোধী দল জাতীয় পার্টি। আহ্বায়ক আবদুল্লাহ সিদ্দিকী জানিয়েছেন, পার্টিপ্রধান এইচ এম এরশাদের অনুমতি নিয়ে শিগগিরই সম্মেলনের তারিখ নির্ধারণ করা হবে।

গত ফেব্রুয়ারিতে সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপির শীর্ষ তিন পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে নির্বাচিত হন সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদক। প্রায় পাঁচ মাস ধরে তিনজনের এই আংশিক কমিটি দিয়ে চলছে বিএনপির কার্যক্রম। পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের কাজ চলছে বলে জানিয়েছেন জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদ। সিলেট জেলা ও মহানগর ছাত্রদলের আংশিক কমিটি ঘোষিত হয়েছিল প্রায় এক বছর আগে। কিন্তু অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্বের কারণে এখন পর্যন্ত পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করা সম্ভব হয়নি। অবশ্য সব দ্বন্দ্বের নিরসন ঘটিয়ে পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের প্রক্রিয়া দ্রুত এগিয়ে চলেছে বলে জানান জেলা সভাপতি সাঈদ আহমদ ও মহানগর সভাপতি নূরুল আলম সিদ্দিকী খালেদ।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow